আপনি পড়ছেন

লুইস ফন গালের তৃতীয় মেয়াদে নেদারল্যান্ডসের কোচিং ক্যারিয়ারকে সফলই বলা যায়। তার সময় টানা ২০ ম্যাচে হারেনি ইউরোপের প্রথম সারির দলটি। বিপরীতে সমালোচিতও হয়েছেন ৭১ বছর বয়সী ফন গাল। এর মূল কারণ রক্ষণাত্মক ফুটবলকে বেঁছে নেওয়া। 

ronald koeman netherlandsরোনাল্ড কোম্যান

বিশেষ করে সবশেষ কাতার বিশ্বকাপে রক্ষণাত্মক ভঙ্গিতে পরিকল্পনা সাজানোয় গালের ওপর তোপ দাগে ডাচ মিডিয়া। সমর্থকদের কড়া কথা থেকেও রেহাই মেলেনি এই বর্ষীয়ান কোচের। বিশ্ব ফুটবলের ২২তম আসরের শেষ আটে আর্জেন্টিনার কাছে হেরে বিদায় নেয় কমলা জার্সিধারীরা। সেই সাথে আরও একবার জায়ান্টদের কোচিংয়ে ফন গাল অধ্যায় শেষ হয়।

অবশ্য শূন্যস্থান পূরণের বিষয়টি নিয়ে ভাবতে হয়নি নেদারল্যান্ডসকে। গত বছরের এপ্রিলেই ফন গাল পরবর্তী নিজেদের প্রধান কোচ হিসেবে রোনাল্ড কোম্যানের নাম ঘোষণা করে রেখেছিল ডাচ ফুটবল ফেডারেশন। ঘোষণা অনুযায়ী, দ্বিতীয় দফায় দায়িত্ব নিয়েছেন কোম্যান। ফের নিজ দেশের কোচিংয়ে ফিরেই আক্রমণাত্মক ফুটবল বেঁছে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

ফন গালের কাজের প্রশংসাও করেছেন কোম্যান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় তিনি লেখেন, ‘নেদারল্যান্ডস জাতীয় দলের কোচিং আমার জন্য পরিচিত। কিছু জায়গা নয়। এখানে নিজের নতুন অধ্যায় শুরু করছি। খেলোয়াড়ি জীবনে আমি বড় টুর্নামেন্টে অনেক সফলতা পেয়েছি। কোচিংয়েও আমি সেটা প্রমাণ করে দিতে চাই।’

‘আমার প্রথম লক্ষ্য থাকবে আগামী মার্চে শুরু হতে যাওয়া ইউরোর বাছাইপর্ব। সেখানে ভালো করতে চাই। লুইস ফন গাল তার কোচিংয়ে টানা ২০ ম্যাচে হারেননি। কোচ হিসেবে আমারও কাছেও এটা অসাধারণ লাগত। তবে এটা অন্যভাবেও করা যায়। আমি ভিন্ন কিছু করতে চাই।’ যোগ করেন কোম্যান।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর