আপনি পড়ছেন

অবশেষে ইউক্রেনকে লেপার্ড-২ ট্যাংক দেওয়ার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে জার্মান সরকার। সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে এই খবর দিয়েছে বার্লিনের বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম। তবে সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। খবর রয়র্টাস, ডয়চে ভেলে।

germany leopard tankযুদ্ধ ক্ষেত্রে লেপার্ড-২ ট্যাংক

যুদ্ধে রাশিয়াকে প্রতিহত করতে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা মিত্রদের কাছে দীর্ঘদিন ধরে ট্যাংকসহ ভারী অস্ত্র চেয়ে আসছিল ইউক্রেন। কিন্তু জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলয লেপার্ড-২ ট্যাংক দিতে রাজি ছিলেন না।

অবশেষ ট্যাংক ইস্যুতে দীর্ঘদিন ধরে চলমান ন্যাটো মিত্রদের মধ্যে বিতর্কের অবসান হতে যাচ্ছে। এর আগে পোল্যান্ড আনুষ্ঠানিকভাবে বার্লিনের কাছে ইউক্রেনে লেপার্ড-২ ট্যাঙ্ক পাঠানোর অনুমতি চাওয়ার পর এমন সিদ্ধান্ত এলো।

গেল মঙ্গলবারই জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রী বরিস পিস্টোরিয়াসের সঙ্গে বৈঠক করেন ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গের। সেখানে জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, এ বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত হতে চলেছে। এরপর থেকেই জার্মান সংবাদমাধ্যমগুলো এই খবর প্রকাশ করতে শুরু করে।

পিস্টোরিয়াস বলেছিলেন, এই ধরনের অস্ত্র রপ্তানিকে অনুমোদন দেওয়া হলে, অস্ত্র, রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামতের মতো সমস্যাগুলো মোকাবেলা এবং ইউক্রেনীয় সৈন্যদের সেগুলো চালানোর প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য বিভিন্ন প্রস্তুতিমূলক কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম স্পেইগেল জানিয়েছে, বার্লিনের অনুমোদন নিয়ে জার্মানির তৈরি সামরিক সরঞ্জাম তৃতীয় দেশে পাঠানো যাবে। সেইসঙ্গে স্ক্যান্ডিনেভিয়া (নরওয়ে, সুইডেন ও ডেনমার্ক) সহ অন্যান্য ইউরোপীয় দেশগুলোও কিয়েভে তাদের ট্যাঙ্ক সরবরাহ করবে।

যদিওবা ইউক্রেনকে ট্যাংক দেওয়ার বিষয়ে জার্মান সরকারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়নি। তবে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত খবর নাকচও করেনি বার্লিন সরকার।

জার্মান অস্ত্র প্রস্তুতকারী কোম্পানি রাইনমেটাল জানিয়েছে, প্রয়োজন হলে তারা ইউক্রেনে ১৩৯টি লেপার্ড যুদ্ধট্যাংক সরবরাহ করতে পারবে।

এদিকে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে বলেছে, আগামী এপ্রিল-মে মাস নাগাদ ২৯টি লেপার্ড-২ ট্যাংক ইউক্রেনকে সরবরাহ করতে পারবে রাইনমেটাল। আর ২০২৩ বা ২০২৪ সালের শুরুর দিকে তারা আরও ২২টি ট্যাংক সরবরাহ করতে পারবে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর