আপনি পড়ছেন

রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে আপনি টুথপেস্টের টিউবটা সবার আগে হাতে নেন। দাঁত মাজার পরই যেন আপনার আড়মোড়াটা কাটে। দৈনন্দিন ব্যবহার্য এই পরিষ্কারক আপনার দাঁত ঝকঝকে রাখা ছাড়াও আরও অনেক কাজে ব্যবহার করা যেতে পারে। দারুণ এই সব ব্যবহার সম্পর্কে জানলে আপনি অবাক না হয়ে পারবেন না।

several uses of toothpaste

টুথপেস্ট যে শুধু মুখের নয়, হাতের গন্ধও দূর করতে পারে। যেমন মাছ, পিঁয়াজ বা রসুনের বিদঘুটে গন্ধ দূর করতে হ্যান্ডওয়াশ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন টুথপেস্ট।

পোকা মাকড়ের কামড়, ছোটখাট পোড়ায় আর ত্বকের ছোট খাট সমস্যায় আক্রান্ত স্থানে সামান্য টুথপেস্ট লাগিয়ে নিন। দিনে যতবার ইচ্ছে লাগাতে পারেন, আরাম পাবেন। তবে মিন্ট ফ্লেবারের টুথপেস্ট ব্যবহার বেশি আরাম পাবেন।

আপনার শখের হীরা বা রূপার গহনা কালচে হয়ে গেলে প্রথমে সেটা পানিতে ভিজিয়ে নিন। তারপর একটি ব্রাশে সামান্য টুথপেস্ট নিয়ে ভালো করে ঘষে পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। এরপর পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছলেই চমকটা দেখতে পাবেন। আপনার গহনা পলিশ হয়ে গেছে।

কাজল, মাসকারা, লিপস্টিকের দাগ সাজসজ্জার সময় ড্রেসিং টেবিল, আয়নায় লেগে যেতে পারে। দ্রুত এসব দাগ ওঠাতে টুথপেস্ট বেশ কার্যকরী। এছাড়া কাপড়ে লাগা দাগও টুথপেস্ট দিয়ে দূর করা যায়। তাছাড়া টুথপেস্ট ব্যবহারে আপনি সহজেই নখের যেকোনো রকম দাগ সহজেই তুলে ফেলতে পারেন।

পিয়ানো, হারমোনিয়াম বা সিন্থেসাইজারের নোংরা রিড পরিষ্কার করতে এটি ব্যবহার করতে পারেন। পরিষ্কার এক টুকরো কাপড়ে সামান্য টুথপেস্ট নিয়ে হালকা করে ঘষে পরিষ্কার করুন। তবে এক্ষেত্রে রঙিন টুথপেস্ট ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

টুথপেস্ট জুতার দাগও তুলে ফেলতে পারে। নরম ভেজা কাপড়ে টুথপেস্ট নিয়ে হালকা ঘষতে হবে। দাগ কঠিন হলে টুথব্রাশে পেস্ট নিয়ে ঘষুন।

স্ক্রিন প্রোটেক্টর ছাড়া মোবাইল ফোন ব্যবহার করছেন? তবে তো প্রায়ই স্ক্রিনের ওপরে অনেক ঘষে যাওয়া দাগ পড়ে থাকবে। চিন্তার কিছু নেই, সামান্য টুথপেস্ট রুমালে লাগিয়ে হালকা চাপে কয়েকবার ঘষে নিন, দাগ দূর হবে।

এছাড়া গাড়ির হেডলাইট, বাথরুমের আয়না, বেসিন বা বাথরুমের স্টিলের কল, কাঠের টেবিল বা অন্য কোনো আসবাবের ছোপ দাগ তুলতে টুথপেস্ট জাদুর মতো কাজ করে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর