আপনি পড়ছেন

ভারতের লোকসভা নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি আসন পাওয়ার পরও স্বস্তিতে নেই বিজেপি। এককভাবে সরকার গঠনের জন্য পর্যাপ্ত আসন না পাওয়ায় বিজেপিকে জোটের শরিকদের ওপর নির্ভর করতেই হচ্ছে। এ অবস্থায় সবচেয়ে বেশি শঙ্কা বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার এবং অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রবাবু নাইডুকে নিয়ে। যে কোনো সময় তারা জোট পাল্টাতে পারেন- এমন গুঞ্জনের মধ্যে বুধবার (৫ জুন) তাদের কাছ থেকে লিখিত অঙ্গীকার নিয়েছে বিজেপি। খবর এনডিটিভি।

nda meetingএনডিএর শরিক দলের নেতৃবৃন্দ

জানা গেছে, লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর বিজেপির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্সের (এনডিএ) শরিক দলগুলোর শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। রাজধানী নয়াদিল্লিতে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে মোদির পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন বিজেপির অপর দুই শীর্ষ নেতা অমিত শাহ ও জে পি নাড্ডা।

নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর গুরুত্বপূর্ণ এই বৈঠকে এনডিএ জোটের সব শরিক দলের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। তবে এ বৈঠকের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার এবং অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রবাবু নাইডু।

india bjp modi 1নরেন্দ্র মোদি

৫৪৩ আসনের লোকসভা নির্বাচনে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজন হয় ন্যূনতম ২৭২টি আসন। দলগত হিসেবে না পেলেও জোটগতভাবে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ প্রয়োজনীয় আসন লাভ করেছে। তারা পেয়েছে ২৯৩টি আসন। তবে তারপরও শঙ্কা তৈরি হয়েছে নীতিশ কুমার ও চন্দ্রবাবু নাইডুর অতীত ইতিহাসের কারণে।

এই দুই নেতারই রাজনৈতিক ডিগবাজির অভিজ্ঞতা রয়েছে। ২০১৯ সালের নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে এনডিএ জোটে থাকলেও পরে সুবিধা বুঝে বিহারের আঞ্চলিক দল আরজেডির সঙ্গে জোট করেন নীতিশ। পরবর্তী সময়ে এই জোটের সুবাধে কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন জোট ইনডিয়াতেও যোগ দিয়েছিলেন নীতিশ। কিন্তু সেখানে কয়েক মাস থাকার পর ইন্ডিয়া জোট থেকে বের হয়ে পুরোনো জোট এনডিএতে ফিরে আসেন নীতিশ।

অন্যদিকে অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রবাবু নাইডুর বিজেপির গুরুত্বপূর্ণ জোটশরিক হলেও গত মেয়াদে দুর্নীতির অভিযোগে বেশ হয়রানির শিকার হয়েছেন। এমনকি কারাগারেও যেতে হয়েছিল তাকে। ফলে বিজেপির ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে জোট পাল্টাতে পারেন এমন গুঞ্জন উঠেছিল।

নীতিশ কুমারের রাজনৈতিক দল জনতা দল ইউনাইটেড (জেডিইউ) এবং চন্দ্রবাবু নাইডুর তেলেগু দেশম পার্টি (টিডিপি) ২৮টি আসনে জয়লাভ করেছে। ফলে তারা জোট থেকে বের হয়ে গেলে সরকার গঠন করতে বেশ চাপে পড়ে যাবে এনডিএ জোট। বিষয়টিকে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে বিজেপি। তাই জোটকে অক্ষত রেখে সরকার গঠন করার জন্য বুধবার বৈঠকে বসেছিলেন মোদি।

বৈঠক সূত্র জানায়, তাদের সে লক্ষ্য পূরণ হয়েছে। জেডিইউ ও টিডিপিকে আপাতত হাতেই রাখা গেছে। আর বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে মোদিই জোটের নেতা নির্বাচিত হয়েছেন। 

Get the latest world news from our trusted sources. Our coverage spans across continents and covers politics, business, science, technology, health, and entertainment. Stay informed with breaking news, insightful analysis, and in-depth reporting on the issues that shape our world.

360-degree view of the world's latest news with our comprehensive coverage. From local stories to global events, we bring you the news you need to stay informed and engaged in today's fast-paced world.

Never miss a beat with our up-to-the-minute coverage of the world's latest news. Our team of expert journalists and analysts provides in-depth reporting and insightful commentary on the issues that matter most.