advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 20 মিনিট আগে

মুসলিম উম্মাহ কখনো সন্ত্রাসীদের ভয় পায়না। তারা একমাত্র আল্লাহ তায়ালাকে ভয় করেন; শুক্রবার স্থানীয় সময় নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে প্রার্থনারত অন্তত ৪৯ জন মুসলিমকে হত্যার ঘটনার পর বাংলাদেশি ক্রিকেটার রুবেল হোসেন তার ফেসবুক পেজে এমনই একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন!

rubel hossain against india in nidahas trophy

টোয়েন্টিফোর লাইভ নিউজপেপারের পাঠকদেকদের জন্য স্ট্যাটাসটি হুবহ তুলে ধরা হলো:

মনে রাখবেন, সারা বিশ্বের মুসলমান ভয় করে একজনকে তিনি হলেন মহান আল্লাহ তার ভয়ে ভীত মুসলিম উম্মাহ। কোন সন্ত্রাসীর কাছে নয়।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে ভয়াবহ হামলায় এখন পর্যন্ত দুই বাংলাদেশি নিহতের খবর নিশ্চিত করেছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।  শনিবার গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘হামলায় ১০ বাংলাদেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।  দুজন নিহত হয়েছেন।  আরও তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন।’ যদিও এর আগে তিন জন বাংলাদেশি নিহত হওয়ার খবর জানা গিয়েছিলো।

শাহরিয়ার জানান, হামলায় বাংলাদেশি নাগরিক লিপি, মুতাসসিফ, মো. ওমর ফারুক, শাহজাদা আক্তার ও শেখ হাসান রুবেল আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে লিপি ও মুতাসসিফের অবস্থা গুরুতর। এছাড়া নিখোঁজ রয়েছেন মোজাম্মেল হক, শাওন ও জাকারিয়া ভুইয়া।

তবে হামলায় নিহত দুজনের নাম জানাননি প্রতিমন্ত্রী।  নিহতদের পরিবার চাইলে তাদের লাশ দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকার সবরকম সহায়তা দেবে বলেন জানান তিনি।

এর আগে শনিবার বাংলাদেশের অনারারি কনসাল শফিকুর রহমান ভূইয়া ইউএনবিকে জানিয়েছিলেন, হামলার পর পাঁচ বাংলাদেশি নিখোঁজ রয়েছেন। তারা হলেন- ড. আবদুস সামাদ, হোসনে আরা, মোজাম্মেল, ওমর ফারুক ও জাকারিয়া।

শুক্রবার হামলার দিন তিনি ইউএনবিকে জানান, নিহতদের মধ্যে তিন বাংলাদেশি রয়েছেন।

পরে শনিবার কনসাল ইউএনবিকে বলেন, ‘তিনজনের নিহতের বিষয়টি আমরা নিউজিল্যান্ডের কোনো কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে নিশ্চিত হতে পারিনি। নিউজিল্যান্ড সরকার আমাদের কোনো মরদেহ বা তথ্য প্রদান করেনি। সেজন্য কিভাবে আমরা বলবো যে, তারা নিহত হয়েছেন?’

‘আমরা ড. আব্দুস সামাদের স্ত্রীর বিষয়ে ভুল তথ্য পেয়েছিলাম। শুক্রবারের হামলায় তিনি মারা যাননি। তিনি ভালো আছেন’, বলেন তিনি।

sheikh mujib 2020