advertisement
আপনি দেখছেন

আগামী ১ মে আয়ারল্যান্ডের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। উইন্ডিজ, আয়ারল্যান্ডের সাথে প্রথমে সেখানে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে মাশরাফিরা। তারপর বিশ্বকাপ খেলতে সরাসরি ইংল্যান্ডে। বাংলাদেশ বিশ্বকাপের পরের রাউন্ডে না উঠলেও ৬ জুলাইয়ের আগে দেশের বিমান ধরতে পারবে না। অর্থাৎ টানা দুই মাসের বেশি সময় দেশের বাইরে থাকতে হচ্ছে।

mashrafe with family

এই সময়ের মাঝে আবার রোজা ও ঈদুল ফিতর অনুষ্ঠিত হবে। এমন উৎসবে পরিবারের কাছ থেকে দূরে থাকা কষ্টকরই। সবকিছু ভেবে আয়ারল্যান্ড ও বিশ্বকাপ সফরে ক্রিকেটারদের পরিবারকে সঙ্গে রাখার অনুমতি দেয়ার কথা ভাবছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। অর্থাৎ পরিবারকে সঙ্গে রাখতে চাইলে বোর্ড আপত্তি তুলবে না। লম্বা সময় পরিবারের বাইরে থেকে ক্রিকেটাররা যেন ‘বোরিং’ হয়ে না পড়েন সেই কারণেই এমন সিদ্ধান্ত বিসিবির।

আজ বৃহস্পতিবার বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা প্রধান ও সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান বলেন, ‘খেলোয়াড়দের পরিবার নিয়ে যাওয়ার অনুমতি সব সময়ই আছে, যদিও আমাদের সময় এটা ছিল না। টিম ম্যানেজমেন্ট তখন অনেক বেশি কড়া ছিল। গত বিশ্বকাপেও আমরা খেলোয়াড়দের পরিবার সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছি। এতো কোনো সমস্যা নেই।’

সকলের সমস্যা হয়তো সমাধান হচ্ছে না! পরিবার বলতে সাধারণত স্ত্রী বা সন্তানদেরই বিদেশ সফরে কাছে রাখেন ক্রিকেটাররা। কিন্তু অবিবাহিত ক্রিকেটারদের তো পরিবারের বাইরে থাকতেই হচ্ছে! কয়েকজন নাকি সফরের ফাঁকা সময়ে দেশে ঘুরে যাওয়ার আলোচনাও করেছেন নিজেদের মধ্যে। আকরাম খান বললেন, তাতেও ‘সমস্যা নেই বোর্ডের’।

তিনি বলেন, ‘কোনো ক্রিকেটার যদি সফরের মাঝে দেশে আসতে চায়, আমরা হয়তো “না” করব না।’