advertisement
আপনি দেখছেন

দুঃস্বপ্ন ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠেছে পাকিস্তান। তিন সংস্করণের ক্রিকেটই ফিরেছে দেশটি। বাংলাদেশসহ কয়েকটা দেশ ইতোমধ্যে পাকিস্তানে খেলে এসেছে। সবকিছুই পরিকল্পনা মাফিক চলছিল। কিন্তু এর মধ্যে ঘটে গেল অপ্রত্যাশিত ঘটনা। তিন দিন আগে কোয়েটায় আত্মঘাতী বোমা হামলা হয়েছে। তাতে দেশটির নিরাপত্তা নিয়ে ফের শঙ্কা তৈরি হলো।

darren sammy 2020

পাকিস্তান সরকার নিজেদের দেশকে নিরাপদ প্রমাণ করতে বহু বছর ধরেই উঠেপড়ে লেগেছে। তবু বেশিরভাগ দলই পাকিস্তানে যাচ্ছে না। বিদেশি খেলোয়াড়দের সংখ্যাটাও বিশাল। তবে এবার অনেকটাই স্বস্তি দিচ্ছে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। এই টুর্নামেন্টে এবার সর্বোচ্চ সংখ্যক ৩৬ জন বিদেশি ক্রিকেটার অংশ নিচ্ছে।

এদেরই একজন বড়সড় একটা সুখবর দিলেন পাকিস্তানকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিশ্বজয়ী প্রাক্তন অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি পাকিস্তানের নাগরিকত্ব চেয়ে আবেদন করেছেন। যেখানে অনেক ক্রিকেটার পাকিস্তান যেতেই চায় না, সেখানে স্যামির নাগরিকত্ব চাওয়াটা বড় একটা প্রাপ্তি দেশটির জন্য। স্যামির নাগরিকত্ব চাওয়ার খবরটি নিশ্চিত করেছেন পেশোয়ার জালমির মালিক জাভেদ আফ্রিদি।

শুক্রবার গণমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, ‘আমরা ড্যারেন স্যামির জন্য সম্মানসূচক নাগরিকত্ব চেয়েছি। আবেদন এখন রাষ্ট্রপতির দফতরে আছে। আমি পিসিবির (পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড) চেয়ারম্যানকে স্যামির হয়ে কথা বলার জন্য অনুরোধ করেছি। যাতে স্যামির আবেদন পাশ হয়।’

গতকাল রাত থেকে শুরু হয়েছে পিএসএলের নতুন আসর। টুর্নামেন্টে অংশ নিতে সর্বপ্রথম যে বিদেশি ক্রিকেটার পাকিস্তানে এসেছেন তিনি হলেন স্যামি। পাকিস্তানে পা রাখার পর তিনি বলেছেন, ‘আমার চাওয়া পিএসএলের পঞ্চম আসর সবচেয়ে সেরা হোক। খেলোয়াড় ও সমর্থক হিসবে চলুন, আমরা বিশ্বকে দেখিয়ে দেই ক্রিকেটের জন্য পাকিস্তান কত দুর্দান্ত জায়গা। আমিই প্রথম এলাম। এখানে পিএসএল হওয়াতে আমি খুব খুশি।’

sheikh mujib 2020