advertisement
আপনি দেখছেন

শুরুটা হলো স্রেফ দুঃস্বপ্নের মতো। দলীয় সংগ্রহ দুই অংকে যাওয়ার আগেই পরপর দুই বলে সাজঘরে ফিরে গেলেন দুই ব্যাটসম্যান। কঠিন এই বিপর্যয় দারুণভাবেই সামলে নিলেন আভিশকা ফার্নান্দো ও কুসল মেন্ডিস। তৃতীয় উইকেট জুটিতে দুজন মিলে গড়লেন ২৩৯ রানের জুটি। রেকর্ড এই জুটি গড়ার পথে শতকের নিশ্ছিদ্র পথে হাঁটলেন দুজনই।

kusal mendis and avishka fernando

ফার্নান্দো-মেন্ডিসের শতকের ওপর দাঁড়িয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে রানের পাহাড় গড়ে শ্রীলঙ্কা। নির্ধারিত ওভারে আট উইকেটে ৩৪৫ রানের চূড়ায় ওঠে লঙ্কানরা। জবাব দিতে নেমে ইনিংসের ৬৫ বল বাকি থাকতে ১৮৪ রানে গুটিয়ে যায় ক্যারিবীয়রা। ১৬১ রানের বিশাল ব্যবধানে জিতে লঙ্কানরা।

দাপুটে জয়ের ম্যাচ সেরা হয়ে হয়েছেন ওপেনার ফার্নান্দো। রাজসিক এই জয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজে ২-০ ব্যবধানে নিশ্চিত করে ফেলল শ্রীলঙ্কা। প্রথম ম্যাচে এক উইকেটের থ্রিলার জয় তুলে নিয়েছিল স্বাগতিক শিবির। আগামী ১ মার্চ পাল্লেকেল্লেতে হোয়াইটওয়াশ ঠেকাতে মাঠে নামবে ক্যারিবীয়রা।

শুরুর ধাক্কা সামলে ওঠা ফার্নান্দো এবং মেন্ডিস দুজনই রান তুলেছেন পরিস্থিতির দাবি মিটিয়ে। ১২৩ বলে দশটি চারে ১২৭ রানে আউট হয়েছেন ফার্নান্দো। তার সঙ্গী মেন্ডিস ১১৯ বলের ১১৯ রান করেছেন ১২টি চারের সুবাদে। পরে থিসারা পেরেরার ব্যাটে ২৫ বলে ৩৬ রানের ঝড় ‍ওঠে। শেষ দিকে ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, ওয়ানিন্দু ডি সিলভা ও ইসুরু উদানার ছোটখাটো ঝোড়ো ইনিংসে সাড়ে তিন শর কাছাকাছি পৌঁছে যায় লঙ্কানরা।

শ্রীলঙ্কার রানপাহাড়ের জবাব দিতে নেমে টেস্ট মেজাজে ব্যাটিং শুরু করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্যারিবীয়দের টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যানই আউট হলেন উইকেটে থিতু হওয়ার পর। যদিও শাই হোপ ছাড়া ইনিংস লম্বা করতে পারেননি কেউ। অতিথি ওপেনার ওপেনার ৫১ রানে ফিরেছেন। বাকি চারজনের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন নিকোলাস পুরান। শেষ দিকে কিমো পলের ২১ রানের ইনিংস ‍শুধু হারের ব্যবধান কমিয়েছে মাত্র।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ৫০ ওভার, ৩৪৫/৮

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৩৯.১ ওভার, ১৮৪

ফল: শ্রীলঙ্কা ১৬১ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরা: আভিশকা ফার্নান্দো

সিরিজ: শ্রীলঙ্কা ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে

তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ: ১ মার্চ, ২০২০

sheikh mujib 2020