advertisement
আপনি দেখছেন

ভারত-পাকিস্তান বৈরিতা বহু বছরের পুরনো। সাম্প্রতিক বছরগুলো দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক আরো শীতল হয়ে উঠেছে। যার প্রভাব পড়ছে ক্রীড়াঙ্গণে। দুই দেশের রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের জের ধরে বেশ কয়েক বছর ধরে হচ্ছে না দ্বিপাক্ষিক ক্রিকেট সিরিজ। এমনকি অন্য খেলাতেও এর যথেষ্ঠ প্রভাব দেখা গেছে।

pakistan celebrating wahab riaz wickets

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অবশ্য এর প্রভাবমুক্ত থাকবে। পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের ভিসা দেবে ভারত সরকার। তবে পাকিস্তানি সমর্থকদের ভিসা দেওয়া হবে কিনা বিষয়টি এখনো ঝুলে থাকল। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে আয়োজন করা হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। টুর্নামেন্টের আয়োজক ভারত।

করোনাভাইরাসে নাকাল উপ-মহাদেশের বেশ কয়েকটি দেশ। এর মধ্যে ভারতে একটু বেশিই জেঁকে বসেছে কোভিড-১৯। ওদিকে এ বছরের বিশ্বকাপের সময় ঘনিয়ে আসছে। তাই এই পরিস্থিতির মধ্যেই বিশ্বকাপ আয়োজনের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)। ইতোমধ্যে ভেন্যু চূড়ান্ত করেছে তারা।

পর্যাপ্ত সহযোগিতা না পেলে ভারতে বিশ্বকাপ খেলতে যাবে না বলে হুমকি দিয়ে রেখেছিলেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান এহসান মানি। প্রটোকল মেনে ভারতে বিশ্বকাপে অংশ নেবে তারা। এ জন্য আইসিসিকে চাপ দিচ্ছে পিসিবি। যার মধ্যে একটি ছিল যথা সময়ের মধ্যে ক্রিকেটারদের ভিসা নিশ্চিতকরণ। ভিসার বিষয়ে লিখিতও চেয়েছিল পিসিবি।

bcci logo india

এই চাপাচাপির মধ্যেই পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের ভিসার দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করল বিসিসিআই। আজ শনিবার বিসিসিআইয়ের সেক্রেটারি জয় শাহ বলেছেন, ‘পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের ভিসার ব্যাপারটার সমাধান হয়েছে। তবে পাকিস্তানি সমর্থকরা ভারতে খেলা দেখতে পারবে কিনা এটা এখনো ঠিক হয়নি। তবে এটারও সমাধান হবে বলে আমরা আইসিসিকে আশ্বস্ত করেছি।’