advertisement
আপনি পড়ছেন

শাহিন শাহ আফ্রিদি, সাজিদ খান ও হাসান আলিদের বোলিং নৈপুণ্যে দ্বিতীয় ইনিংসে অল্প রানেই গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। এরপর ব্যাট করতে নেমে পুরোটাই অপ্রতিরোধ্য ছিলেন আবিদ আলি এবং আব্দুল্লাহ শফিক। তাতেই চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম টেস্ট হাতের মুঠোয় নিয়ে চতুর্থ দিন শেষ করেছে পাকিস্তান।

abid and shafiq 2চতুর্থ দিন শেষে অপরাজিত আছেন আবিদ ও শফিক

দ্বিতীয় ইনিংসে ৮৩ রানের লিড নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ। হাতে ছিল ৬ উইকেট। মুশফিকুর রহিম ১২ এবং ইয়াসির আলি রাব্বি ৮ রানে অপরাজিত ছিলেন। হাসান আলির শিকার হয়ে চতুর্থ দিনে শুরুতেই ব্যক্তিগত ১৬ রানে ফিরে যান মুশফিক। ষষ্ঠ উইকেটে লিটন কুমার দাসকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন ইয়াসির। শাহিন শাহ আফ্রিদির বল হেলমেটে লেগে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়ার আগে ৩৬ রান করেন এই টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান।

সাজিদের লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে ১১ রানের বেশি করতে পারেননি মেহেদি হাসান মিরাজ। ফিফটি করে ৫৯ রানে বিদায় নেন লিটন। তার ইনিংসে ছিল ৬টি চারের মার। পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা নামের প্রতি সুবিচার করতে না পারায় ১৫৭ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। ৩২ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট তুলে নেন বাঁহাতি পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি। সাজিদ খান এবং হাসান আলির শিকার যথাক্রমে ৩ এবং ২ উইকেট।

what a day for pakistan

প্রথম ইনিংসে ৪৪ রানে এগিয়ে ছিল বাংলাদেশ। সব মিলিয়ে ২০২ রানের লক্ষ্য মাত্রা দাঁড়ায় পাকিস্তানের সামনে। সে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দিনশেষে কোন উইকেট না হারিয়ে ১০৯ রান করেছে সফরকারীরা। আবিদ ৫৬ এবং শফিক ৫৩ রান নিয়ে শেষ দিনের খেলা শুরু করবেন। জিতলে হলে তাদের করতে হবে আর মাত্র ৯৩ রান। আর বাংলাদেশকে তুলে নিতে হবে ১০ উইকেট। যা এক কথায় অবিশ্বাস্য!