advertisement
আপনি পড়ছেন

আগেই মৌখিকভাবে জানিয়েছিলেন যে, আসন্ন নিউজিল্যান্ড সফরে যেতে পারবেন না। তবে সেটা লিখিতভাবে জানাননি সাকিব আল হাসান। লিখিতভাবে জানালেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হোসেন পাপনের বক্তব্য ছিল এমনই।

sakib al hasan letter bcbসাকিব আল হাসান, ফাইল ছবি

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে চলমান দ্বিতীয় প্রথম দিন শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি। এর খানিক পর বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিবকে রেখেই দল ঘোষণা করা হয়। এর ঘণ্টা খানেক পরই তিনি নাকি লিখিতভাবে বিসিবিকে জানিয়েছেন যে, নিউজিল্যান্ড সফরে তার যাওয়া হবে না।

শনিবার সন্ধ্যার আগমুহূর্তে বিসিবি বস সাংবাদিকদের জানান, এখনো লিখিতভাবে বোর্ডে কোনো কিছুই জানায়নি সাকিব। আগে ও জানাক, তারপর অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা। অর্থাৎ নাজমুল হাসান পাপনের কথায়ও অনেকটা ইঙ্গিত মেলে যে, সাকিব আগের বারের মতো এবারো নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন না।

bcb logo 2বিসিবি লোগো

কিন্তু তাহলে কেন ঘোষিত স্কোয়াডে সাকিবের নাম রাখা হল? কারণ হিসেবে আনুষ্ঠানিক আর অনানুষ্ঠানিকতার কথা বলা হচ্ছে। অর্থাৎ সাকিব লিখিতভাবে বিসিবিকে কিছু জানাননি। কিন্তু দল ঘোষণার মাত্র ঘণ্টার মধ্যেই তিনি লিখিতভাবে জানালেন!

আবার বিষয়টি নিয়ে যেন কেউ মুখও খুলতে চাচ্ছেন না। শেষ পর্যন্ত অবশ্য স্বীকার করলেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান এবং বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস। জানালেন, সাকিব চিঠি দিয়েছেন তাদের। সন্ধ্যার পর পরই বিসিবির কাছে চিঠি দিয়েছেন তিনি। যেখানে নিউজিল্যান্ড সফরে যেতে না চেয়ে ছুটি চেয়েছেন সাকিব।

জানা গেছে, বিসিবিকে দেওয়া ছুটির চিঠিতে সাকিব বলেছেন, জরুরি পারিবারিক কারণে তার নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এ জন্য যেতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন তিনি। এর আগে বছরের শুরুতে মার্চেও নিউজিল্যান্ড সফরে যাননি সাকিব। তখনো পারিবারিক কারণ দেখিয়ে ছুটি নিয়েছিলেন।