advertisement
আপনি পড়ছেন

বার্সেলোনার জার্সিতে তারা যেন ‘আলাল-দুলাল’। একজন গোল পেলে অন্যজনের আনন্দ আর দেখে কে! একজনকে দিয়ে গোল করিয়ে নিতে পারলেই অন্যজন বেজায় খুশি। আবার একজন গোল না পেলে অন্যজনের ‘মন খারাপ’ই যেন বেশি। বলা হচ্ছে লুইস সুয়ারেজ আর নেইমারের কথা। বার্সেলোনার জার্সিতে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে প্রতিপক্ষকে ধ্বংস করার চেষ্টা করে যান দু’জন। কিন্তু আগামীকাল ভোরে নেইমার যখন মাঠে থাকবেন লুইস সুয়ারেজ হয়তো মনে মনে তার ভালো না খেলার প্রার্থনাই করবেন! নেইমারের ব্রাজিল আর লুইস সুয়ারেজের উরুগুয়ে যে মুখোমুখি হচ্ছে ভোরে।

neymar brazil

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে বাংলাদেশ সময় ভোর ৫টায় উরুগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামছে উড়তে থাকা ব্রাজিল। বার্সেলোনার আক্রমণ ভাগের দুই নক্ষত্র নেইমার-সুয়ারেজের দ্বৈরথ অবশ্য হচ্ছে না। নিষেধাজ্ঞার কারণে ব্রাজিলের বিপক্ষে খেলতে পারছেন না সুয়ারেজ। তবে এতে ব্রাজিল-উরুগুয়ে মুখোমুখি হওয়ার উত্তেজনায় ভাটা পড়ার কথা নয়।

দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে ব্রাজিল-উরুগুয়ে মুখোমুখি হওয়া মানেই বাড়তি রোমাঞ্চ। বর্তমান অবস্থান সেটা আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে রীতিমতো উড়ছে ব্রাজিল। নতুন কোচ তিতের অধীনে প্রতিপক্ষকে দুমড়ে-মুচড়ে দিয়ে চলছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। মাঠে ফুল ফোটাচ্ছেন নেইমার-গ্যাব্রিয়েল জেসুস-ফেলিপে কুতিনহোরা। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষেই ব্রাজিলিয়ানরা।

উরুগুয়েও কম যাচ্ছে না। নিয়মিত ভালো খেলতে থাকা দলটি পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে। এমন দুই দল যখন মুখোমুখি বাড়তি আলোচনা তো হবেই। আলোচিত ম্যাচের আলোটা যদি নেইমাররা কেড়ে নিতে পারেন ‘রাশিয়া বিশ্বকাপ নিশ্চিত’ বলে দিতে পারে ব্রাজিল।

ইতিহাস বলছে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে ২৮ পয়েন্ট পেলেই বিশ্বকাপ খেলা নিশ্চিত হয়ে যায়। সেখানে ব্রাজিলের পয়েন্ট এখন ২৭। ভোরে উরুগুয়েকে হারাতে পাড়লে হবে ৩০। তবে না পাড়লেও অবশ্য চিন্তা করতে হচ্ছে না নেইমারদের। কারণ হাতে তখনও চার ম্যাচ থাকবে। তবে ব্রাজিল ডিফেন্ডার গিল বলে দিলেন, ‘এখনই বিশ্বকাপে যাওয়া নিশ্চিত করতে চাই। জয়ের ব্যাপারটিই আমাদের চিন্তায়, তবে ড্র হলেও চলবে।’

তবে গিলের কথার মতো কাজটা সহজ হওয়ার কথা নয়। কারণ খেলাটা উরুগুয়ের মাঠে।