advertisement
আপনি পড়ছেন

আগামী নভেম্বরে শুরু হতে যাওয়া ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের পর সরে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা আছে ফ্রান্সের প্রধান কোচ দিদিয়ের দেশামের। কাতার বিশ্বকাপের পর শূন্যস্থানটি পূরণ করতে পারেন তারই স্বদেশি এবং সাবেক সতীর্থ জিনেদিন জিদান। সোমবার রাতে ফ্রান্স ফুটবল ফেডারেশনের (এফএফএফ) প্রেসিডেন্ট নোয়েল লা গ্রায়েট এমনটিই ইঙ্গিত দিলেন।

zinedine zidane 2022জিদান

গ্রায়েট ইঙ্গিত দিলেন জিদানের নিকটতম ভবিষ্যত নিয়েও। তার দাবি, ফ্রান্স জাতীয় দল নয়, রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক কোচ দায়িত্ব নিতে পারেন মেসি-নেইমারদের। জিজু যোগ দিতে পারেন প্যারিস সেন্ট জার্মেইতে (পিএসজি)। যেখানে দলটির প্রধান কোচ মাওরিসিও পচেত্তিনোর ভবিষ্যত সুতোয় ঝুলে আছে।

একাধিক ফরাসি গণমাধ্যমের গুঞ্জন, আর্জেন্টাইন কোচকে সরিয়ে জিদানকে ডাগ আউটে আনতে পারে পিএসজি। কিন্তু জিদান কী ভাবছেন? প্রায় বছর খানেক ধরে যিনি নির্বাসনে আছেন। এই প্রশ্নের উত্তর দিলেন জিজুর ঘনিষ্ঠজন এফএফএফ প্রেসিডেন্ট গ্রায়েট। সোমবার ফরাসি ক্রীড়া দৈনিক এল’ইকুইপকে তিনি বলেছেন, ‘জিদান মনে হয় পিএসজির দায়িত্ব নেবেন।’

জিজুর ফ্রান্সের কোচ হওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে দেশটির ফুটবলের সর্বোচ্চ কর্তার ভাষ্য, ‘জিদান রিয়াল মাদ্রিদে তার সামর্থ্য দেখিয়েছেন। এটা (ফ্রান্সের কোচ হওয়ার সম্ভাবনা) ফরাসিদের মনে আছে। তিনি সফল হতে পারেন। কিন্তু এটা (জিদানকে ফ্রান্সের কোচ বানানো) আমার লক্ষ্য নয়। দেখা যাক কী হয়। যদি দিদিয়ের (দেশাম) এবং আমার পথ আলাদা হয়ে যায় তাহলে নিশ্চিতভাবেই সে (জিদান) বিকল্প হতে পারেন। এ ক্ষেত্রে তাকে ফ্রি থাকতে হবে।’

কয়েক বছর আগে কার্লো অনচেলত্তির সহকারী হিসেবে রিয়াল মাদ্রিদে কাজ করেন জিদান। ইতালিয়ান কোচ চলে যাওয়ার পর ক্লাবের দায়িত্ব নেন ফরাসি কিংবদন্তি। স্পেনের ক্লাবটির হয়ে টানা তিনটি উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন জিজু। এ ছাড়া স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপাও জিতিয়েছেন রিয়ালকে। তবে দ্বিতীয় মেয়াদে তার রিয়ালে ফেরাটা সুখের হয়নি।