advertisement
আপনি পড়ছেন

বহুকাল আগে থেকেই বিদেশি রাষ্ট্রে সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখার জন্য বিভিন্ন দেশে রাষ্ট্রদূত নিয়োগ করা হয়। কিন্তু বর্তমানে ডিজিটাল যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে ডিজিটাল রাষ্ট্রদূতের প্রয়োজন অনুভব করেছে নর্ডিক দেশ ডেনমার্ক। তাই বিশ্বে প্রথমবারের মতো অ্যাপল, গুগল, ফেসবুক, মাইক্রোসফটের মতো শীর্ষস্থানীয় টেকজায়ান্টগুলোর সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে 'ডিজিটাল রাষ্ট্রদূত' নিয়োগ দেয়ার পরিকল্পনা করেছে দেশটি।

digital ambassador first ever by denmark

ড্যানিশ সংবাদমাধ্যম পলিটিকেনের এক সাক্ষাৎকারে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্ডার্স স্যামুয়েলসেন জানান, বিভিন্ন রাষ্ট্রের মতোই বড় ধরণের প্রতিষ্ঠানগুলো ডেনমার্ককে সমভাবে প্রভাবিত করে। এই প্রতিষ্ঠানগুলোও এখন এক একটি রাষ্ট্রের মতোই ক্ষমতাশালী হয়ে উঠেছে এবং এই সত্য গ্রহণ করতে হবে।

তিনি জানান, নতুন রাষ্ট্রদূত এখনো নিযুক্ত করা হয়নি তবে এই উদ্যোগ ওয়াশিংটনের বাইরে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে নতুন সম্পর্ক স্থাপন করবে। আশা করা যাচ্ছে, ট্রাম্প-প্রশাসনের আমলে এই উদ্যোগ উভয় পক্ষেরই উপকারে আসবে।

ডিজিটাল রাষ্ট্রদূত নিয়োগের ফলে ডেনমার্কে ডিজিটাল ব্যবসাগুলোর বিনিয়োগ বাড়বে এই আশা ব্যক্ত করে রাষ্ট্রদূত বলেন, 'এরই মধ্যে অ্যাপল ও ফেসবুক ডেনমার্কে বড় ধরণের ডেটা সেন্টার স্থাপনের পরিকল্পনা করেছে। এটি হলে দেশে নতুন কর্মসংস্থান এবং আয়ের উৎসও তৈরি হবে।