advertisement
আপনি পড়ছেন

মারাত্মক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা জেনেও চুল ও ত্বক ঠিক রাখতে দীর্ঘদিন ধরে নিয়মিত ওষুধ সেবন করছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের ব্যক্তিগত চিকিৎসক ড. হ্যারোল্ড বর্নস্টেইন এই তথ্য জানিয়েছেন।

donald trump funny

ট্রাম্পের ব্যক্তিগত এই চিকিৎসক জানান, ত্বক ও চুলের জন্য ট্রাম্প দীর্ঘদিন ধরে অতিরিক্ত মাত্রায় অ্যাসপিরিন, কোলেস্টেরল এবং লিবিড সেবন করছেন।

ড. হ্যারোল্ড বর্নস্টেইন জানান, চুল পড়া রোধে ট্রাম্প যে অষুধটি নিয়মিত খাচ্ছেন সেটি ১৯৯২ সালে প্রোস্ট্রেট চিকিৎসার জন্য ব্যবহার করা হতো। পাঁচ বছর ব্যবহার বন্ধ থাকার পর চুল পড়া কমানোর জন্য এই ওষুধটিকে পুনরায় অনুমোদন দেয়া হয়। অনুমোদনে এই ওষুধের পাশ্বপ্রক্রিয়া যৌন কর্মক্ষমতা হ্রাসের কথা স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়।

জানা যায়, ১৯৮০ সাল থেকে নিয়মিত বর্নস্টেইনের চেম্বারে যান ট্রাম্প। তার আগে তিনি বর্নস্টেইনের বাবার কাছে দেখাতেন।

বর্নস্টেইন ট্রাম্পের প্রথম স্বাস্থ্য প্রতিবেদন প্রকাশ করে মন্তব্য করেছিলেন, 'যুক্তরাষ্ট্রের একজন স্বাস্থ্যবান প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন ট্রাম্প।'

কিন্তু তার দ্বিতীয় প্রতিবেদনে তিনি ট্রাম্পের টাক ঢাকতে পাশ্বপ্রতিক্রিয়াসম্পন্ন এই ওষুধ সেবনের কথা স্বীকার করেছেন।

২০১২ সালের এক গবেষণায় দেখা যায়, ফিনাসটেরিড ব্যবহারকারী পুরুষদের মধ্যে শতকরা ৯৬ ভাগই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় ভুগেছেন। ২০১৩ সালের আরেকটি গবেষণায় দেখা যায়, এই ওষুধ সেবনে আত্মহত্যা প্রবণতা, দুশ্চিন্তা, বিষন্নতা এবং স্টেরয়েডের মাত্রা অতিরিক্তভাবে বেড়ে যায়।

ফিনাসটেরিড ওষুধের বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান মার্কের বিরুদ্ধে এসব পাশ্বপ্রতিক্রিয়ার কারণে এখন পর্যন্ত অন্তত ১ হাজার ৩৭০টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।