advertisement
আপনি দেখছেন

উত্তর কোরিয়া এবং আমেরিকার পারস্পরিক দ্বন্দ্ব উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে গোটা বিশ্বে। অনেকেই এসব ঘটনাকে দেখছেন তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের পূর্বাভাস হিসেবে। এর মধ্যে বিভিন্ন বিশ্ব গণমাধ্যমে খবর এসেছে, মার্কিন প্রশাসন উত্তর কোরিয়াকে ভয় দেখাতেই মার্কিন রণতরি বহরের গতিপথ পরিবর্তনের ঘটনা নিয়ে মিথ্যাচার করেছে।

us navy ship

গত সপ্তাহে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু পরীক্ষা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান। এরপর ট্রাম্প পাল্টা আক্রমণের হুঁশিয়ারিও দেন। এরপরই মার্কিন প্রশাসন কৌশলে জানায়, মার্কিন রণতরি কার্ল ভিনসনের নেতৃত্বে আমেরিকার যুদ্ধজাহাজের বহর কোরীয় উপদ্বীপ বরাবর রওনা হয়েছে। তবে সেই সময় মার্কিন যুদ্ধজাহাজের বহর উল্টো দিকে অগ্রসর হচ্ছিল এবং ক্রমাগত কোরিয় উপদ্বীপ থেকে দূরে সরে যাচ্ছিল।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রশান্ত মহাসাগরীয় কমান্ডের পক্ষ থেকে রণতরি বহরের গতিপথ বিষয়ক বিবরণীতে যুক্তরাষ্ট্রের মিথ্যাচারের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। মার্কিন এই সামরিক বাহিনীর প্রশান্ত মহাসাগরীয় কমান্ড জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজের বহর প্রথমে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পরিকল্পিত প্রশিক্ষণপর্বে অংশ নেয়। এরপর বহরটি নির্দেশনা মেনে পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দিকে যায়।

এর আগে আমেরিকার নৌবাহিনী নিজেদের ওয়েবসাইটে কার্ল ভিনসনের ছবি পোস্ট করে। মার্কিন নৌবাহিনী জানায়, রণতরিটি ভারত মহাসাগরের সুন্দা প্রণালি ধরে এগিয়ে যাচ্ছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস বলেছিলেন, 'নির্দেশমতো কার্ল ভিনসন নির্দেশনা অনুযায়ী চলছে। কোরিয় উপদ্বীপের দিকে অগ্রসর হচ্ছে।'

কূটনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, 'যুগ যুগ ধরে আমেরিকা বিভিন্ন ইস্যুতে এমন মিথ্যাচার করে। স্বার্থ উদ্ধার করতেই তারা মূলত মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে প্রতিপক্ষকে ভয় দেখায়। নিজেদেরকে বিশ্ব মোড়ল প্রমাণ করতে সবসময়ই আগ্রহী আমেরিকা।'