advertisement
আপনি দেখছেন

ইসলাম ধর্মের অন্যতম ধর্মীয় আচার মসজিদের মাইকে আজানের সুমধুর ধ্বনি প্রচারের বিরোধীতা করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় শিল্পী সনু নিগম। বহুল আলোচিত ও সমালোচিত এই ভারতীয় সঙ্গীতশিল্পী এবার মাথা ন্যাড়া করার বিষয়ে নতুন কথা বললেন এবং পুরো ভারতবাসীর প্রতি নতুন এক আহ্বান জানান।

sonu nigom no hair

বুধবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে দেয়া এক টুইটে সনু নিগম বলেন, 'আপনারা সবাই একদিন বুঝতে পারবেন যে চুল নিয়ে আমি যা কিছু করেছি সেটা শুধু মানুষকে ঘুম থেকে জাগানোর জন্যই।' অন্য এক টুইট বার্তায় সনু বলেন, 'আমার সৎ উদ্দেশ্য অবশেষে আপনারা বুঝতে শুরু করেছেন। পৃথিবীকে শান্তিপূর্ণ রাখতেই হবে।'

মসজিদের মাইকে আজান দেয়ার বিরোধীতা করার পর গত মঙ্গলবার ফতোয়ার মুখোমুখি হন সনু নিগম। সনুর মাথা ন্যাড়া করলে নগদ ১০ লাখ রুপি পুরস্কারের ঘোষণা দেন ভারতীয় ওয়েস্ট বেঙ্গল মাইনরিটি ইউনাইটেড কাউন্সিলের সহ-সভাপতি সৈয়দ শাহ আতেফ আলি আল কাদেরি। আল কাদেরি বলেছিলেন, 'কেউ সনু নিগমের মাথা মুড়িয়ে, গলায় পুরনো ছেঁড়া জুতার মালা পরিয়ে দিলে ব্যক্তিগতভাবে তাকে দশ লাখ রুপি দেয়া হবে।'

টুইটারে এই ফতোয়ার বিষয়ে প্রশ্ন তোলেন সনু নিগম। এরপর বুধবার দুপুরের মধ্যেই মাথা ন্যাড়া করার সিদ্ধান্ত নেন সনু নিগম। সনুর মাথা ন্যাড়া করেন নাপিত আলিম হাকিম। এরপরই আল কাদেরিকে ১০ লাখ রুপি রেডি রাখতে বলেন।

তবে গত বুধবার সংবাদ সম্মেলনে সনু নিগম বলেন, 'লাউডস্পিকার নয়, আজান গুরুত্বপূর্ণ একইভাবে আরতি গুরুত্বপূর্ণ কিন্তু লাউডস্পিকার নয়।’ নিজের করা টুইটগুলোর বিষয়ে সনু নিগম বলেন, 'প্রত্যেকের নিজের মতামত প্রকাশের পূর্ণ অধিকার আছে। আমি লাউডস্পিকার নিয়ে কথা বলেছি। ধর্ম নিয়ে নয়, মন্দির, গুরুদুয়ারা ও মসজিদ সবকিছু নিয়েই বলেছি।'