advertisement
আপনি পড়ছেন

ভারতের আসাম রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী হীমন্ত বিশ্বশর্মা পরিবেশ বাঁচাতে দারুণ এক উদ্যোগ নিয়েছেন। গতকাল গুয়াহাটিতে মে দিবসের অনুষ্ঠানে তিনি ঘোষণা দেন, যারা বিনা পয়সায় প্রথম বর্ষে ভর্তি হয়েছে, দ্বিতীয় বর্ষেও সে সুযোগ পেতে হলে প্রত্যেককে গাছ লাগাতে হবে। সারাবছর গাছের যত্ন নিয়ে বছর শেষে সেই গাছের ছবি জমা দিতে হবে স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে।

school tree plantation assam

পরিবেশবাদীরা বলেই চলেছেন, বিভিন্ন সময়ে ব্যাপক হারে গাছ কাটা হচ্ছে। কিন্তু সে তুলনায় গাছ লাগানো বা লাগানো গাছের পরিচর্যার জন্য তেমন কোন উদ্যোগই নেয়া হচ্ছে না। এই সংকট থেকে নিষ্পত্তি পেতে আসামের শিক্ষামন্ত্রী বৃক্ষরোপণ ও বৃক্ষের পরিচর্যায় শিক্ষার্থীদের আগ্রহী করতে এবং এই কর্মের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে পড়ার সুযোগ করে দিলেন।

গতকাল আসামের বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষদের নিয়ে গুয়াহাটি কন্টক কলেজে শিক্ষা দপ্তরের ডাকা এক বৈঠকে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী হীমন্ত বিশ্বশর্মা।

হীমন্ত বিশ্বশর্মা তার বক্তব্যে বলেন, 'মাধ্যমিক পাশের পর উচ্চমাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে যেসব শিক্ষার্থী কলেজ স্তরে বিনা পয়সায় ভর্তি হচ্ছে, তারা পরবর্তী শিক্ষাবর্ষেও বিনা পয়সায় ভর্তির সুযোগ পাবে। তবে একটি শর্তপূরণের মাধ্যমে সেটা সম্ভব হবে। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে একটি করে গাছ লাগিয়ে সারাবছর সেটার যত্ন নিতে হবে।'

তিনি বলেন, 'নিজ জমিতেই গাছ লাগাতে হবে, এমন কোন শর্ত নেই। স্কুল-কলেজ প্রাঙ্গনে, রাস্তার পাশে বা যেকোন সরকারি জমিতেও গাছ লাগানো যাবে। কিন্তু গাছ লাগানোর সময় এবং বছর শেষে গাছটি কেমন রয়েছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সেটার ছবি তুরে জমা দিতে হবে।'

এছাড়া শিক্ষার্থীদের পরিবেশ সম্পর্কে সচেতন করতে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত আলোচনা করার পরামর্শ দেন শিক্ষামন্ত্রী।