advertisement
আপনি পড়ছেন

কোরিয় উপদ্বীপকে পরমাণু যুদ্ধের কাছাকাছি নিয়ে যাওয়ার জন্য আমেরিকাকেই দায়ী করছে উত্তর কোরিয়া। সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকার যৌথ নৌ মহড়ার পরই এমন অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি করছে দেশটি।

north korea neuclear bomb

নিজেদের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডারকে ‘সর্বোচ্চ গতিতে’ সমৃদ্ধ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, অর্ধশতকের বেশি সময় ধরে আমেরিকার সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার সংঘাত চললেও এর আগে কোরিয় উপদ্বীপ পরমাণু যুদ্ধের এতোটা কাছে পৌঁছায়নি।

তিনি বলেন, পিয়ংইয়ংয়ের উপর আমেরিকার চাপ অব্যাহত থাকায় উত্তর কোরিয়া সর্বোচ্চ গতিতে পরমাণু অস্ত্রে শক্তিশালী হবে। উত্তর কোরিয়ার কাছে যথেষ্ট শক্তিশালী পরমাণু অস্ত্র থাকার ফলেই অন্যান্য দেশের মতো এখানেও আমেরিকা আগ্রাসন চালাতে পারেনি।

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন থেকে ওয়াশিংটন ও পিয়ংইয়ংয়ের মধ্যে তুমুল বিরোধ চলছে। উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যে কোন ধরণের ব্যবস্থা নিতে প্রস্তুত রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে যে কোন হামলার সঠিক জবাব দিতে ও পরমাণু অস্ত্রের মাধ্যমে আমেরিকাকে হুমকির মধ্যে রেখেছে উত্তর কোরিয়া।