আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 52 মিনিট আগে

শুক্রবার জুমার নামাজের সময় নিউজিল্যান্ডে দুটি মসজিদে ভয়াবহ বন্দুক হামলায় ৪৯ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত উগ্রপন্থী শেতাঙ্গ ব্রেনটন টারান্টের বিরদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে তুরস্ক। এ হামলার আগে তিনি বেশ কয়েকবার তুরস্ক সফর করেছেন বলে জানা গেছে। এমন অভিযোগ ওঠার পর আঙ্কারা এই হামলাকারীর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করলো।

brenton tarrent visit pakistan

দেশটির কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। শুক্রবার জুমার নামাজের সময় অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত উগ্র ডানপন্থী শেতাঙ্গ সন্ত্রাসী ব্রেনটন টারান্ট আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিয়ে ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে নৃশংস হত্যাযজ্ঞ চালায়। মসজিদের ভেতরে ঢুকে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ৪৯ জনকে হত্যা করে এই হামলাকারী। গুরুতর আহত হয় অর্ধ-শতাধিক।

হামলার পর ২৮ বছর বয়সী এই হামলাকারীকে গ্রেপ্তারের পর শনিবার নিউজিল্যান্ডের আদালতে তোলা হয়। তার বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

তুরস্কের এক সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে আল-জাজিরা জানায়, অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত এই হামলাকারী বেশ কয়েকবার তুরস্ক সফর করেছেন। তবে ব্রেনটন টারান্ট কখন তুরস্কে এসেছিলেন সে ব্যাপারে নির্দিষ্ট কোনো তথ্য দেননি তুর্কি এই কর্মকর্তা।

এদিকে তুরষ্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে প্রাণঘাতী হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, এর দায় পশ্চিমা বিশ্বের। এমন বিভীষিকাময় বিষয়টা তারা খুব গুরুত্বহীন ভাবে দেখছে। অনেক সময় বিশ্ব এসব হামলাকে উৎসাহিত করছে।

এরদোয়ান আরো বলেন, এটা পরিষ্কারভাবে বোঝা যাচ্ছে যে, ঘাতক আমাদের দেশ, দেশের মানুষ ও আমাকেও টার্গেট করেছিল।

পশ্চিমাবিশ্বের ইসলামভীতির সমালোচনা করে তুরস্কের এই প্রেসিডেন্ট বলেন, এ ধরনের হামলা ঠেকাতে পশ্চিমা বিশ্বকে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া উচিত।