advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 20 মিনিট আগে

নিখোঁজ হওয়া মালয়েশিয়ার বিমান এমএইচ৩৭০ নিয়ে নতুন তথ্য দিয়েছেন মার্কিন এয়ারলাইন্সের সাবেক এক পাইলট। র‌্যান্ডি রায়ান নামের ওই পাইলটের দাবি, এমএইচ৩৭০ বিমানটি ‘পূর্ব-পরিকল্পিত’ গোপন রানওয়ের দিকে গেছে, অথবা সাগরে বিধ্বস্তও হতে পারে।

malaysian flight mh370

এ বিষয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি মিরর একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এতে ওই পাইলটের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, বিমানটি গোপন রানওয়ে লক্ষ্য করেই উড্ডয়ন করেছিল। তাই অনেক অনুসন্ধান করেও গত চার বছরে বিমানটির কোনো হদিস মেলেনি।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে ২৩৯ জন যাত্রী নিয়ে মালয়েশিয়ার ওই বিমানটি কুয়ালালামপুর থেকে চীনের বেইজিং যাবার পথে নিখোঁজ হয়। এখন পর্যন্ত বিমানটির অংশ সন্দেহে বিভিন্ন জায়গা থেকে ২০টি টুকরো উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে সাতটি টুকরোকে ওই বিমানের বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিমানটি সাগরে বিধ্বস্ত হয়েছিল বলে ধারণা করা হয়। কিন্তু এ ধরনের দুর্ঘটনার কথা নাকচ করে সাবেক পাইলট র‌্যান্ডি রায়ান বলছেন, বিমানটি নিখোঁজের জন্য ‘বড় সুরঙ্গ’কে দায়ী করছেন তিনি। তার দেওয়া তত্ত্ব (থিউরি) উপেক্ষা করা উচিত হবে না বলেও উল্লেখ করেছেন র‌্যান্ডি। তবে এ ব্যাপারে তিনি বিস্তারিত কিছু জানাননি।

ডেইলি মিরর বলছে, যখন এটা মেনে নেওয়া হচ্ছে যে, বিমানটি সাগরে বিধ্বস্ত হয়েছে তখন সাবেক ক্যাপ্টেন বলছেন, সেক্ষেত্রে শূন্য সম্ভাবনা রয়েছে। 

তার ধারণা অনুযায়ী, নিখোঁজ ওই বিমানের ধ্বংসাবশেষ মাদাগাস্কারে বিলীন হয়ে গেছে। এর বাকি অংশগুলো আশপাশের রি-ইউনিয়ন দ্বীপ ও মরিশাসের দিকে পানির সাথে চলে গেছে।

তদন্তকারীরা মনে করছেন, বিমানটি অস্ট্রেলিয়ার পশ্চিমে ভারতীয় মহাসাগরে বিধ্বস্ত হয়েছে। কিন্তু তারা এটা বলতে পারছে না যে, বিমানটি কেন ওই রুটে গেল, আর সেখানেই র‌্যান্ডির তত্ত্বের একটি যৌক্তিক দিক সামনে চলে আসছে।

sheikh mujib 2020