advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

আমেরিকার পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে দেশটির কেন্দ্রীয় সামরিক কমান্ড ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বাহিনীকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা করেছে ইরান। সেইসঙ্গে ওয়াশিংটনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদকে সমর্থনের অভিযোগ এনেছে তেহরান।

us army 1

ট্রাম্প প্রশাসন ইরানের ইসলামিক রিভল্যুশনারি গার্ড কর্পসকে (আইআরজিসি) সন্ত্রাসী সংগঠন আখ্যায়িত করার অল্প সময়ের মধ্যে পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে ওই ঘোষণা দিয়েছে ইরানে সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল।

ইরানের প্রেসটিভির বরাত দিয়ে রুশ গণমাধ্যম স্পুটনিক এক প্রতিবেদনে এ খবর দিয়েছে।

এর কয়েক ঘণ্টা আগে আজ সোমবার ট্রাম্প প্রশাসন ইরানের এলিট ফোর্স আইআরজিসিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করে। ইরানের এ বাহিনী অত্র অঞ্চলে সন্ত্রাসবাদকে লালন-পালন করছে বলেও অভিযোগ করা হয়েছে মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে।

বিবৃতিতে ট্রাম্প বলেন, ‘যদি কেউ আইআরজিসির সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে লেনদেন করে, তাহলে ধরে নেওয়া হবে তারা সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে।’

ট্রাম্পের ওই সিদ্ধান্তের নিন্দাও জানিয়েছে ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল। মার্কিন প্রশাসনের এই অবৈধ সিদ্ধান্তের ফলে অত্র অঞ্চল তথা গোটা পৃথিবীর শান্তি ও নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে বলেও কাউন্সিলের এক বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ট্রাম্প যে ইরানি এলিট ফোর্সকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন তা গত সপ্তাহের শেষ দিকে প্রকাশ করে মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

খবর প্রকাশের পরই ইরানের পক্ষ থেকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয় যে, আমেরিকা যদি তাদের সেনাবাহিনীকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা করে তাহলে তেহরানও মার্কিন সেনাবাহিনীকে সন্ত্রাসী তালিকাভুক্ত করবে। যা হবে দায়েশের (আইএস) পর দ্বিতীয় কোনো সংগঠন।

sheikh mujib 2020