advertisement
আপনি দেখছেন

গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপনসহ জাতিসংঘের বিভিন্ন নির্দেশ না মেনে আন্তর্জাতিক বিশ্বে আলোচনায় উত্তর কোরিয়া। উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র দমনে দেশটির সীমান্তে ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী প্রক্রিয়া 'থাড'ও স্থাপন করেছে যুক্তরাষ্ট্র।  সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের একটি গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান জানিয়েছেন, উত্তর কোরিয়ায় সম্প্রতি চালু হওয়া একটি পারমাণবিক চুল্লিতে পুনরায় পারমানবিক বোমার কাঁচামাল 'প্লুটোনিয়াম' উৎপাদন হতে যাচ্ছে।

north korean plutonium

যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা 'ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্স'-এর পরিচালক জেমস ক্ল্যাপার দীর্ঘ অনুসন্ধান শেষে এ তথ্য দেন। তিনি সর্তক বার্তা দিয়ে বলেন, উত্তর কোরিয়ার পারমানবিক চুল্লিতে প্লুটোনিয়াম উৎপাদন হতে পারে। ফলে অচিরেই পিয়ংইয়ং পারমানবিক বোমা তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় প্লুটোনিয়ামের সক্ষমতা অর্জন করতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট কমিটির মুখোমুখি হয়ে মি. ক্ল্যাপার বলেন, প্লুটোনিয়াম থেকে পারমানবিক বোমার কাঁচামাল পাওয়া সম্ভব। পরমাণু বিজ্ঞানীদের তথ্য মতে, ২০ কিলোটন সক্ষমতার একটি পারমানবিক বোমা তৈরিতে চার কেজির মতো প্লুটোনিয়ামের প্রয়োজন। উত্তর কোরিয়ার চুল্লি চালু থাকলে প্রতি বছরে ১টি পারমানবিক বোমা তৈরির কাঁচামাল পাওয়া যাবে।

এই গোয়েন্দা বলেন, উত্তর কোরিয়া আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র তৈরিরও উদ্যোগ নিয়েছে। দেশটির সাম্প্রতিক কার্যকলাপর অনুযায়ি ভবিৎষতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি একটি মারাত্মক হুমকি হতে পারে।

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর গত বছরের সেপ্টেম্বরে ইয়ংবিনের প্রধান পারমানবিক চুল্লিটি চালু হয়। উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন চুল্লিটি চালু করার পর গত মাসে ৪র্থ পারমানবিক অস্ত্রের পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া।

 

আপনি আরো পড়তে পারেন

উত্তর কোরিয়া সীমান্তে আমেরিকার ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী 'থাড'

এশিয়া-আফ্রিকায় জিকা ছড়ানোর আশঙ্কা

বন্দীদের নিশ্চিহ্ণ করতে চায় সিরিয়া : জাতিসংঘ

sheikh mujib 2020