advertisement
আপনি দেখছেন

সম্প্রতি বিশ্বের অস্ত্র ক্রেতা হিসেবে শীর্ষে থাকা দেশগুলোর একটি তালিকা প্রকাশ করেছে ‘দ্যা স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনিস্টিটিউট বা এসআইপিআরআই নামের একটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটির দেয়া তথ্যমতে, ২০১৫ সালে অস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে সারা বিশ্বের মধ্যে প্রথমস্থানে রয়েছে সৌদি আরব। আর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত এবং তালিকার দশ নম্বরে রয়েছে পাকিস্তান।

saudi missile

প্রতিষ্ঠানটির প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালে সৌদি আরব ৩১৬ কোটি ১০ লাখ ডলারের অস্ত্র কিনেছে। এছাড়াও দেশটি ২০১১ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত পাঁচ বছরে বিশ্বের দ্বিতীয় প্রধান অস্ত্র আমদানিকারক দেশ হিসেবে পরিচিত ছিল। এর আগে ২০০৬ সাল থেকে ২০১০ সালের মধ্যকার সময়ের চেযে সৌদি আরব অস্ত্র কেনার পরিমাণ শতকরা ২৭৫ ভাগ বাড়িয়েছে বলে জানা গেছে।

অস্ত্র ক্রয়ে দ্বিতীয় স্থানে ভারত থাকলেও অস্ত্র আমদানিতে তার পরের স্থানটিতে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তারপর পর্যায়ক্রমে রয়েছে মিশর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইরাক, চীন, ভিয়েতনাম, গ্রিস ও পাকিস্তান। দেখা গেছে, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোই অস্ত্র ক্রয়ে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে।

২০১৪ সালে অস্ত্র কেনার দিক থেকে পাকিস্তান ছিল তালিকার নয় নম্বর স্থানে। একবছরের মধ্যে তালিকার এক পিছিয়ে দশে চলে এসেছে দেশটি। একই বছর ভারতও তালিকার প্রথম সারিতে ছিল। কিন্তু ২০১৫ সালে ভারতের জায়গা দখল করে নেয় সৌদি আরব। ফলে ভারত চলে আসে দ্বিতীয় স্থানে।

২০১৫ সালে শুধু আমেরিকার কাছ থেকেই ভারত মোট ৩০৭ কোটি ৮০ লাখ ডলারের অস্ত্র ক্রয় করেছে। আর চীনের কাছ থেকে এক পাকিস্তানই মোট ৭৩ কোটি ৫০ লাখ ডলারের অস্ত্র কিনেছে বলে জানা গেছে।

বলা হয়, চীনের প্রধান অস্ত্র ক্রেতা হচ্ছে পাকিস্তান। কারণ গতবছর চীন শতকরা ৩৫ ভাগ অস্ত্রই পাকিস্তানের কাছে বিক্রি করেছে। পাকিস্তানের পর চীন থেকে বেশি অস্ত্র আমদানি করে থাকে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার।

অপর দিকে ভারতের কাছে সবচেয়ে বেশি অস্ত্র বিক্রি করে থাকে রাশিয়া ও আমেরিকা। গত বছর আমেরিকার পাশাপাশি রাশিয়ার কাছ থেকেও ১৯৬ কোটি ৪০ লাখ ডলারের অস্ত্র ক্রয় করেছে ভারত। পাশাপাশি ইহুদি রাষ্ট্র ইসরাইলের কাছ থেকেও ৩১ কোটি ৬০ লাখ ডলার অস্ত্র কিনেছে দেশটি।

 

আপনি আরো পড়তে পারেন 

যুক্তরাজ্যে আরবি ভাষার শিক্ষক খুন, আটক দুই

ফিজিতে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ে নিহত ১৭

সাগরতল দিয়ে ওমানে যাবে ইরানের গ্যাস

sheikh mujib 2020