advertisement
আপনি দেখছেন

মার্কিন ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তার ক্ষমতার শেষ দিকে এসে কুখ্যাত কয়েদখানা 'গুয়ান্তানামো বে' বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছেন। কয়েদিদের ওপর অমানবিক-বর্ণনাতীত নির্যাতন করার জন্য এক দশকের বেশি সময় ধরে বিশ্বব্যাপী এই কয়েদখানা পরিচিত।

guantanamo

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা মঙ্গলবার ওই কুখ্যাত জেলটি বন্ধ করার প্রস্তাব কংগ্রেসে পেশ করেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেছেন, একুশ শতকে আমেরিকার মতো দেশে এই জেল চালু রাখার অর্থ আমরা মূল্যবোধকে অমর্যাদা করি। পরে এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেন,'গুয়ান্তানামো বে' চালু রাখলেই আমেরিকার জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়টি সুনিশ্চিত নয়। ওই জেল গোটা বিশ্বের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে। ২০০৯ সাল থেকেই 'মানবাধিকার' বিষয়টি প্রাধাণ্য দিয়ে জেলখানাটি বন্ধ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বারাক ওবামা।

প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তের পর মার্কিন মুলুকের কুখ্যাত 'গুয়ান্তানামো বে' এবার সত্যি সত্যি বন্ধ হচ্ছে। বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা এই কয়েদখানার বিরোধিতা করে আসছে। জানা যায়, 'গুয়ান্তানামো বে' জেলে আটকে রাখা হত কুখ্যাত অপরাধীদের। বছরের পর বছর কোন ধরনের বিচার ছাড়াই আটকে রাখা হত কয়েদিদের। যাবতীয় মানবাধিকার লঙ্ঘন করে জেলের ভেতরে অপরাধীদের ওপর চালানো হত অমানুষিক অত্যাচার।

২০০২ সালের জানুয়ারিতে ওই জেল চালু হয়। ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসীদের সেখানে আটকে রাখার উদ্দেশ্যেই নির্মিত হয় জেলখানাটি। পরে নিমর্ম নির্যাতনের নানাখবর আন্তর্জাতিক মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। বন্দিদের পানিও খেতে দেয়া হত না। প্রাথমিক পর্যায়ে প্রায় ৮০০ অপরাধীকে বন্দি করে রাখা হয়। বর্তমানে কয়েদখানায় রয়েছেন প্রায় ২০০ অপরাধী।

 

আপনি আরো পড়তে পারেন

এপ্রিলেই নির্বাচনের ঘোষণা দিলেন আসাদ

বিশ্বে অস্ত্র ক্রয়ে এক নম্বরে সৌদি আরব

যুক্তরাজ্যে আরবি ভাষার শিক্ষক খুন, আটক দুই

sheikh mujib 2020