advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 48 মিনিট আগে

অ্যামাজনে আগুন নাকি টাইটানিক খ্যাত হলিউড অভিনেতা ডিক্যাপ্রিও দিয়েছেন! এমনটাই দাবি করেছেন ব্রাজিলের কট্টর ডানপন্থী প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো। তিনি বলেছেন, হলিউডের সুপারস্টার ও পরিবেশকর্মী লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠানকে টাকা দিয়ে এ আগুন লাগিয়েছেন। তবে এমন ‘মিথ্যা অভিযোগ’ সরাসরি নাকচ করে দিয়েছেন অস্কারজয়ী এ অভিনেতা।

dicaprio bolsonaroপাল্টাপাল্টি অবস্থানে লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও এবং ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো

চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে অ্যামাজন বনে লাগা আগুনে ভয়াবহ দাবানলের সৃষ্টি হয়। ব্রাজিল, বলিভিয়া, পেরু ও প্যারাগুয়ের বিভিন্ন অংশে জুন ও জুলাই মাস থেকে দাবানলের সূত্রপাত হলেও বিশ্ববাসীর দৃষ্টিগোচর হয় আগস্টে। এতে বনের প্রায় সোয়া ২ কোটি একর জায়গা পুড়ে যায়।

কাতার ভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা জানায়, গত বৃহস্পতিবার এক ফেসবুক লাইভে বোলসোনারো দাবি করেন, ‘এনজিওগুলো কি কাজ করেছে? তারা আগুনের ছবি তুলেছে, এগুলো নিয়ে বিশ্ববাসীর কাছে ব্রাজিলের বিরুদ্ধে কথা বলে। আগুন নেভাতে সাহায্য চেয়ে বিভিন্ন মহলে টাকা চায়। লিওনার্দোও ৫ লাখ ডলার দেন। এর একটা অংশ চলে যায় যারা আগুন লাগাতে ব্যস্ত তাদের পকেটে।’

গত শুক্রবার ব্রাসিলিয়ার প্রেসিডেনশিয়াল প্যালেসে ডিক্যাপ্রিওকে কটাক্ষ করে এক সংবাদ সম্মেলনে বোলসোনারো বলেন, ‘তিনি একজন দুর্দান্ত মানুষ, তাই না? অ্যামাজনে আগুন দিতে তিনিও যে টাকা দিয়েছেন।’

জনপ্রিয় অভিনেতা হয়েও অনেকদিন ধরে পরিবেশ নিয়ে কাজ করে আসছেন ডিক্যাপ্রিও। তার পরিবেশবিষয়ক প্রতিষ্ঠান ‘আর্থ অ্যালায়েন্স’ গত জুলাই ও আগস্ট মাসে অ্যামাজনে লাগা আগুন নেভানোর সহায়তায় ৫ লাখ মার্কিন ডলার দান করেন।

এদিকে ব্রাজিল প্রেসিডেন্টের করা এমন অভিযোগ অস্বীকার করেন এই অভিনেতা। শুক্রবার বার্তা সংস্থা এএফপি’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেন, যে দুই অলাভজনক প্রতিষ্ঠানের নাম তদন্তে উঠে এসেছে সহায়তা পাওয়ার মতো হলেও ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে তারা কোনো প্রদান করেননি।

গতকাল নিজের ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টে ব্রাজিলের জনগণ, সংস্কৃতি, সরকার ও বৈচিত্রের প্রশংসা করে তাদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ডিক্যাপ্রিও। অ্যামাজনের এমন দুর্যোগে কাজ করতে পেরে গর্ববোধও করেন তিনি।

sheikh mujib 2020