advertisement
আপনি দেখছেন

নিউজিল্যান্ডের জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র হোয়াইট আইল্যান্ডের আগ্নেয়গিরি থেকে হঠাৎ অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে। এতে অন্তত ৫ জন নিহত হয়েছেন। এখনো নিখোঁজ আছেন কমপক্ষে আরো ২০ জন। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করেছে কর্তৃপক্ষ।

new zealand volcano erupts1নিউজিল্যান্ডের হোয়াইট আইল্যান্ডের আগ্নেয়গিরি থেকে আজ হঠাৎ অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়

আল-জাজিরা জানায়, আজ স্থানীয় সময় দুপুর ২টার পরপর আচমকা জেগে ওঠে অগ্নুৎপাত শুরু হয় নিউজিল্যান্ডের মূল ভূখণ্ড থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত সমুদ্রের মাঝে হোয়াইট আইল্যান্ডের আগ্নেয়গিরিতে। স্থানীয় ভাষায় যা হোয়াকারি দ্বীপ হিসেবে চেনে। এ সময় এলাকাটিতে শতাধিক পর্যটক অবস্থান করছিলেন।

পর্যটকদের ধারণ করা ভিডিওতে দেখা যায়, অগ্নুৎপাতের ফলে পুরো এলাকাটি সাদা ধোঁয়ায় ঢেকে যাবার ঠিক আগে কয়েক ডজন পর্যটক আগ্নেয়গিরির পৃষ্ঠে হাঁটাচলা করছেন।

পুলিশ জানায়, এখন পর্যন্ত ২৩ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকাজে একাধিক হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হয়েছে। তবে প্রায় ১২ হাজার ফুট উচ্চতা পর্যন্ত সৃষ্ট প্রচণ্ড ধোঁয়া ও ছাইয়ের কারণে উদ্ধারকাজ ব্যাহত হচ্ছে। পরিবেশ অনুকূলে না থাকলেও উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

new zealand volcano eruptsপ্রচণ্ড ধোঁয়া আর ছাইয়ের কারণে উদ্ধারকাজ ব্যহত হচ্ছে

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন জানান, দ্বীপটিতে অনেক পর্যটক ছিলে বলে জানা গেছে। আহতদের দ্রুত উদ্ধার করে মূল ভূখণ্ডে নিয়ে আসা হচ্ছে।

স্থানীয় মেয়র জানান, আহত পর্যটকরা আগ্নেয়গিরির কতোটা কাছাকাছি ছিলেন, সে অনুযায়ী দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তাদের কাছ থেকে জানার চেষ্টা চলছে, আরো পর্যটক সেখানে আটকা পড়েছেন কি না।

আগ্নেয়গিরি থেকে আরও অগ্নুৎপাতের সম্ভাবনা আছে এমন শঙ্কায় স্থানীয় প্রশাসন ওই এলাকার আশেপাশে কাউকে না যাওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়,  হোয়াকারিতে সর্বশেষ ২০১৬ সালে অল্প সময়ের জন্য অগ্নুৎপাতের ঘটনা ঘটে। তবে সেবার হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

sheikh mujib 2020