advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

তুরস্কের নৌবাহিনী ইসরায়েলের একটি জাহাজকে সাইপ্রাসের জলসীমায় প্রবেশে বাধা দিয়েছে। এই অঞ্চলে প্রাকৃতিক সম্পদ অনুসন্ধান নিয়ে উত্তেজনা অব্যাহত থাকায় জাহাজটিকে জলসীমা ত্যাগ করতে বাধ্য করে।

isralei ship

ইসরায়েল ওশানোগ্রাফি এবং লিমোনোলজিক্যাল রিসার্চ ইনস্টিটিউশনের ব্যাট গালিম জাহাজটি সাইপ্রাসের সাথে সমন্বয় করে সাইপ্রাসের জলসীমায় গবেষণা চালাচ্ছিল বলে শনিবার ইসরায়েলের জাতীয় অবকাঠামো, জ্বালানি ও পানি মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে ইসরায়েলি গণমাধ্যম জানিয়েছে।

প্রতিবেদন অনুসারে, তুর্কি জাহাজ ইসরায়েলি জাহাজের সাথে যোগাযোগ করে তাদের কার্যক্রমের ব্যাখ্যা চায় এবং এ অঞ্চল ছেড়ে দেয়ার দাবি জানায়। ইসরায়েলি জাহাজটির স্থান ত্যাগ ছাড়া কোনো উপায় ছিল না যদিও ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলটির ওপর তুরস্কের কোনো এখতিয়ার নেই।

এই ঘটনা এমন এক সময়ে ঘটল যখন তুরস্ক ভূমধ্যসাগরের পূর্ব অঞ্চলের সীমান্ত নিয়ে লিবিয়ার সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। সাইপ্রাস ও গ্রীসের অর্থনৈতিক অঞ্চলকে উপেক্ষা করেই চুক্তিটি করা হয়েছে।

গ্রিস এবং তুরস্ক তাদের এক্সক্লুসিভ ইকোনমিক জোনের সীমানা চিহ্নিত করেনি। অন্যদিকে সাইপ্রাস, ইসরায়েল ও মিসর তাদের এক্সক্লুসিভ ইকোনমিক জোনের সীমানা চিহ্নিত করে গ্যাস ক্ষেত্র আবিষ্কার করেছে যা কয়েক দশক ধরে তাদের অর্থনীতিকে শক্তি করবে বলে মনে করা হচ্ছে।

তুরস্ক-লিবিয়া চুক্তি এই অঞ্চলে তেল ও গ্যাস অনুসন্ধানকে কেন্দ্র করে গ্রীস, সাইপ্রাস ও মিসরের সাথে আঞ্চলিক উত্তেজনা বাড়িয়ে তুলবে বলে মনে করা হচ্ছে।

গ্রীস, সাইপ্রাস ও মিসর বলেছে, নতুন চুক্তি আন্তর্জাতিক আইনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। এ ঘটনায় গ্রীস লিবিয়ার রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে।

sheikh mujib 2020