advertisement
আপনি দেখছেন

বিশ্বব্যাপী ইসলামভীতি দূর করার লক্ষ্য নিয়ে কুয়ালালামপুরে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল প্রভাবশালী পাঁচটি মুসলিম দেশের সামিট। এতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের অংশগ্রহণ করার কথা থাকলেও, শেষ মুহূর্তে এসে তিনি অংশ নেয়া থেকে বিরত থাকেন।

imran khan and erdogan

এ বিষয়ে শনিবার সামিটের শেষ দিন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান বলেন, সৌদি শাসকদের চাপের কারণেই সামিটে অংশ নিতে পারেননি ইমরান খান। পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীকে সামিটে অংশ নিতে নিষেধ করেছিল সৌদি শাসকরা।

তিনি বলেন, সৌদি এই বলে হুমকি দিয়েছিল যে, সামিটে অংশ নিলে তারা পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে তাদের সব অর্থ সরিয়ে নেবে। পাশাপাশি সৌদিতে থাকা ৪০ লাখ পাকিস্তানি প্রবাসীকে তাড়িয়ে দেবে।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, পাকিস্তান বর্তমানে চরম অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যে রয়েছে। এ কারণে ইমরান খান নিজের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে বাধ্য হন।

ইরানি গণমাধ্যম পার্সটুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সামিটে অংশ নিতে রাজি হওয়ায় পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীর ওপর অসন্তোষ প্রকাশ করে সৌদি আরব। এরই প্রেক্ষিতে হঠাৎ করেই সৌদি সফরে যান ইমরান খান। পরে সেখান থেকে ফিরে নিজের অপারগতার কথা জানান।

sheikh mujib 2020