advertisement
আপনি দেখছেন

ইরান ও আমেরিকার মধ্যকার উত্তেজনায় পারস্য উপসাগরীয় এলাকায় রাজনৈতিক গরম আবহাওয়া বিরাজ করছে। আর তার মাঝেই ফের হুঙ্কার ছাড়লেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। বলেছেন, কোনোভাবেই পরমাণু কর্মসূচিতে মার্কিন সরকারের পক্ষপাতিত্ব বরদাস্ত করা যাবে না।

south koreas warship persian gulf

প্রসঙ্গত, পিয়ংইয়ং এমন সময় এই বার্তা দিলো যখন উপসাগরীয় এলাকায় আমেরিকার ঘনিষ্ঠ মিত্র দক্ষিণ কোরিয়া তাদের রণতরী পাঠানোর কথা বলেছে।

অবশ্য দক্ষিণ কোরিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তাদের কোনো যুদ্ধ জাহাজ সাম্প্রতিক ইরান-আমেরিকা সংঘাতের মধ্যে অংশ নেবে না। কিন্তু দক্ষিণ কোরিয়া কেন তাদের রণতরী উপসাগরীয় এলাকায় পাঠাচ্ছে তা নিয়েই প্রশ্ন তুলছে ইরান সরকার। আর তাই ইরানের মিত্র দেশ বলে পরিচিত উত্তর কোরিয়া পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে বার্তা দিলো।

উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে বলা রয়েছে, আমেরিকার বিদ্বেষী নীতি অব্যাহত থাকলে কোরীয় উপদ্বীপকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার স্বপ্ন কোনোদিনও বাস্তবায়িত হবে না।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, জাতিসংঘে নিযুক্ত উত্তর কোরিয়ার প্রধান কূটনীতিক জো ইয়ং চোল এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

কূটনৈতিক মহলের ধারণা, দক্ষিণ কোরিয়ার যুদ্ধ জাহাজ পারস্য উপসাগরে ঘোরাফেরা করার বিষয়টি হাল্কাভাবে নিচ্ছে না উত্তর কোরিয়া। আর ইরানও নিজেদের অবস্থানে অনড়। কোনোভাবেই আমেরিকার চোখ রাঙানি মেনে নেওয়া হবে না বলেই জানিয়েছে তেহরান।

মনে করা হচ্ছে, উত্তর কোরিয়ার মতো দেশের সঙ্গে সম্পর্কের খাতিরেই ওই কূটনৈতিক বার্তা দিয়েছে পিয়ংইয়ং।

sheikh mujib 2020