advertisement
আপনি দেখছেন

উত্তর কোরিয়ায় প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ বা নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহভাজনকে গুলি করা হত্যা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। সন্দেহভাজন লোকটিকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। জানা যায়, নিয়ম ভেঙ্গে সেখান থেকে বের হয়ে গণশৌচাগারে গোসল করার অভিযোগে তাকে হত্যার নির্দেশ দেয় উত্তর কোরিয়া প্রশাসন।

north korea coronavirus

দক্ষিণ কোরিয়ার দৈনিক ডং-এ ইলবো জানায়, কোয়ারেন্টাইন থেকে বের হয়ে গণ-শৌচাগারে যাওয়ার কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে। কোবিড-১৯ ভাইরাস যাতে ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য এমনটি করা হয়েছে।

সেখানে আরো উল্লেখক করা হয়, সম্প্রতি চীন থেকে ফেরার পর তাকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। করোনাভাইরাস যাতে ছড়াতে না পারে সেজন্য পূর্ব-সতর্কতা হিসেবে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা সামরিক আইনও জারি করেন।

অন্যদিকে যুক্তরাজ্যের দৈনিক মিরর জানায়, কিমের সমন জারির পর চীনের সীমান্তঘেষা দেশটিতে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হয়। নির্দেশ অনুযায়ী যারা সম্প্রতি যারা চীনে গেছেন বা যাদের সঙ্গে চীনাদের সম্পর্ক আছে তাদের সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। যারা নির্দেশ অমান্য করবে তাদের সামরিক আইনে শাস্তি দেয়া হবে। 

তবে এখন পর্যন্ত দেশটিতে কোভিড-১৯ ভাইরাসের কোনো অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

এদিকে চীনে এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩৪৯ জনে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ২৪২ জন। যার সবাই দেশটির হুবেই প্রদেশের বাসিন্দা। দিনটি ছিলো ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর সবচেয়ে ভয়াবহ। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ১৪, ৮৪০ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৮ হাজার ৯৭৮ জনে।