advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা ও সাবেক সংসদ সদস্য তাপস পাল আর নেই। মঙ্গলবার ভোরে মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬১ বছর।

tapos pal

১৯৫৮ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন জনপ্রিয় এ অভিনেতা। শিক্ষাজীবন শেষ করেন বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে হুগলী মহসিন কলেজ থেকে জীববিজ্ঞানে স্নাতক করার মাধ্যমে। ছোটবেলা থেকেই অভিনয়ের প্রতি তার ঝোঁক ছিল। তাই তো মাত্র ২২ বছর বয়সে ভারতীয় পেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় তার প্রথম ছবি ‘দাদার কীর্তি’। এরপর আর পিছে ফিরে তাকাতে হয়নি। একের পর এক অভিনয় করে গেছেন অসাধারণ সব চলচ্চিত্রে।

‘গুরু দক্ষিণা’ চলচ্চিত্রে তার অভিনয়ের জন্য বাংলার দর্শক মহল তাকে আজীবন মনে রাখবে। ওই চলচ্চিত্রে তার অভিনয় এবং কালী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তার যুগলবন্দি দর্শকের রীতিমতো কাঁদিয়েছিল। এছাড়া ‘সুরের ভুবনে’, ‘মায়া মমতা’, ‘সমাপ্তি’, ‘অন্তরঙ্গ’, ‘চোখের আলো’, ‘মেজ বউ’, ‘সাহেব’ এ রকম বেশকিছু জনপ্রিয় চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তাপস পাল। ১৯৮১ সালে 'সাহেব' সিনেমার জন্য ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পান তিনি।

শুধু ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রে নয়, বলিউডের ছবিতেও অভিনয় করেছেন এই অভিনেতা। ১৯৮৪ সালে হীরেন নাগের ‘অবোধ’ চলচ্চিত্রে মাধুরী দীক্ষিতের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি।

অভিনয়ের পাশাপাশি রাজনীতিতেও সরব ছিলেন তাপস। ২০০৯ সালে ভারতের সাধারণ নির্বাচনে কংগ্রেসের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে কৃষ্ণনগরের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি।

sheikh mujib 2020