advertisement
আপনি দেখছেন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে ইরানে এখন পর্যন্ত ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। সংক্রমিত হয়েছেন আরো ২৮ জন। ফলে চীনের মতো এ দেশটিতেও ভাইরাসটি মহামারি আকারে দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। অন্যদিকে, প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানে করোনাভাইরাসে কেউ আক্রান্ত না হলেও বাড়তি সতর্কতা হিসেবে তেহরান-ইসলামাবাদ সীমান্তে জরুরি অবস্থা জারি করেছে বেলুচিস্তান সরকার।

pakistan iran broder

এ বিষয়ে গত শনিবার বেলুচিস্তান প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জাম কামাল আলিয়ানির সঙ্গে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যোগাযোগ করেছেন বলে জানিয়েছে অনলাইন ডন নিউজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তানে করোনাভাইরাসের প্রবেশ ঠেকানোর বিষয়ে আলোচনা করেন ইমরান ও অলিয়ানি। এ সময় ইরানের সঙ্গে বেলুচিস্তানের যেসব জেলা রয়েছে, সবকটিতে অবিলম্বে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, সীমান্ত শহর তাফতানে একটি ইমার্জেন্সি সেন্টার ও একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খুলেছে প্রাদেশিক স্বাস্থ্য বিভাগ। নিয়ন্ত্রণ কক্ষে ইতোমধ্যে দুই জন চিকিৎসক কাজ শুরু করেছেন। পাশাপাশি তাফতান শহরে থার্মাল গানসহ সাতজন চিকিৎসকের একটি টিম মোতায়েন করা হয়েছে। যাতে ওই শহরে আসা তীর্থযাত্রী ও অন্যদের তাৎক্ষণিকভাবে স্ক্রিনিং করা যায়।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য বিভাগের একটি বিশেষজ্ঞ টিম প্রদেশটিতে পৌঁছানোর কথা রয়েছে। তাদের কাজ হবে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের করোনা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া।