advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের রাজধানী দিল্লিসহ বিভিন্ন স্থানে মুসলিমদের ওপর সহিংসতা নিরসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আজ বুধবার এক টুইটে তিনি এ কথা বলেন। এ ছাড়া দেশটির প্রেসিডেন্ট দিল্লিতে মসজিদে আগুন দেওয়ার ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। প্রতিবাদ জানিয়েছেন দেশটির বিরোধীদলীয় নেতা শাহবাজ শরীফ। খবর ডন।

delhi clash kejriwal

ইমরান খান বলেন, নাৎসি বাহিনীর মতো করে ভারতের রাষ্ট্রীয় সয়ং সেবক সংঘ (আরএসএস) দেশটিতে দমন-পীড়ন ও সহিংসতা করছে। তাদের টার্গেট সেখানকার মুসলিমরা। কিন্তু মনে রাখবেন যখনই কোনো বর্ণবাদী শক্তির উৎপত্তি হয় তখন মানুষের ঘৃণায় তা ধ্বংস হয়। জম্মু ও কাশ্মিরে যা হয়েছে তা সহিংসতার শুরু ছিল মাত্র। এখন ভারতের ২০ কোটি মুসলিম ঝুঁকিতে আছে।

এদিকে, ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) প্রতিবাদে আন্দোলনকারী এবং সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গত সোমবার শুরু হওয়া ওই সংঘর্ষে এ পর্যন্ত ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ছাড়া ওই ঘটনায় দুই শতাধিক লোক আহত হয়েছে।

এসব ঘটনার পরই টুইট করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

ইমরান খান আরো বলেন, পাকিস্তানিদের উদ্দেশে বলছি , আমাদের দেশে যেসব সংখ্যালঘু বাস করছেন তারা এদেশেরই নাগরিক। তাই তাদের ওপর কোনো অপ্রিতিকর ঘটনা সহ্য করা হবে না। তাদের নিজস্ব ধর্ম পালনে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা নিশ্চিত করুন।

অন্যদিকে, দিল্লির আশোক নগরে মসজিদে আগুন দেওয়ার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভী বলেছেন, এটি বর্বর যুগের কাজ। এমন অসম্মানীয় কাজ অগ্রহণযোগ্য।

এ ছাড়া দিল্লি ইস্যু নিয়ে মুখ খুলেছেন পাকিস্তানের বিরোধীদলীয় নেতা শাহবাজ শরীফ। তিনি বলেন, গুজরাটে মোদি যে কাজ করেছেন দিল্লিতেও সেই একই কাজ করতে চাচ্ছেন মোদি। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ভারতের মুসলিমদের ওপর সহিংসতা ও ধর্মীয় স্থাপনায় হামলার বিষয়টি অবশ্যই পর্যালোচনা করতে হবে।

sheikh mujib 2020