advertisement
আপনি দেখছেন

করোনা আতঙ্কে বিশ্বের অন্তত ৩৩টি দেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে ১৭টিতে পুরোপুরি এবং বাকি ১৬টি দেশে বিভিন্ন অঞ্চলে। এতে ১৭টি দেশে শিক্ষাবঞ্চিত হচ্ছেন ৩৬৩ মিলিয়নের বেশি শিক্ষার্থী এবং বাকি ১৬টি দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ৫৬৭ মিলিয়ন শিক্ষার্থী।

school closed

আজ বুধবার ইউনেস্কোর এক জরিপে বলা হয়, করোনা প্রতিরোধে দেশগুলোর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ।

যে ১৭টি দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সে দেশগুলি হলো- চীন, ইতালি, ইরান, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, মঙ্গোলিয়া, আজারবাইজান, বাহরাইন, জর্জিয়া, ইরাক, কুয়েত, লেবানন, কাতার, উত্তর কোরিয়া, পোল্যান্ড, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।

আর যে ১৬টি দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সে দেয়গুলি হচ্ছে, ভুটানের থিম্পু, পারো এবং পুনাখা। কম্বোডিয়ার সিয়েম রিপ প্রদেশ, পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশ, আফগানিস্তানের হেরাত প্রদেশ, ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীর। ফ্রান্সের ওঁইস ও হ্যত-রিন, কোরসিকা এবং আরো কিছু শহর। জার্মানির বাভারিয়া, নর্দেইন-ওয়েস্তফলেন, ব্রান্দেবার্গ, বাদেন-উর্তামবার্গ ও নিয়েদারসাখসেনসহ কিছু শহর। গ্রিসের আচায়ি, জান্তে ও ইলিস অঞ্চল।

ভারতের দিল্লি, কাশ্মিরের জম্মু ও সাম্বা জেলা এবং কেরালার পাথানামথিত্তা ও কোত্তাম জেলা। ফিলিপাইনের ম্যানিলা সিটি, কালাবারজোন, মধ্যাঞ্চলীয় লুজন ও ইয়োকস অঞ্চল। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া, কোলোরাডো, ফ্লোরিডা, জর্জিয়া, ইডাহো, ইলিনয়স, ইন্ডিয়ানা, কেন্টাকি, ম্যাসাচুসেটস, মিসৌরি, নেব্রাস্কা, নিউ হ্যাম্পশায়ার, নিউইয়র্ক, নিউজার্সি, পেনসিলভানিয়া, রোড আইল্যান্ড, সাউথ ক্যারোলিনা, টেনেসে, ভার্জিনিয়া, ভারমন্ট ও ওয়াশিংটন।

এছাড়া যুক্তরাজ্যের নর্দার্ন আইয়ারল্যান্ড টেটবুরি, নর্থউইচ, মিডলসবারা ও ব্রিক্সাম। ইউক্রেনের চেরনিবৎসি ওব্লাস্ত এবং পর্তুগাল ও স্লোভাকিয়ার বেশ কিছু অঞ্চল ও শহর। ভিয়েতনামের হ্যানয়, হো চি মিন সিটিসহ বেশ কিছু শহর ও অঞ্চলের স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।