advertisement
আপনি দেখছেন

চীনের পর এবার ইতালিতে ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। চীনে যেখানে দিনকে দিন আক্রান্ত ও মৃতের হার কমছে সেখানে ইতালিতে বিপরীত চিত্র লক্ষ্য করা গেছে। বিগত ২৪ ঘণ্টায় ইউরোপের এ দেশটিতে মোট ১৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দেশটির সরকার খাবার ও ওষুধের দোকান ছাড়া সবকিছু বন্ধ ঘোষণা করেছে।

corona italy death

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, ইতোমধ্যে করোনাকে মহামারি হিসেবে আখ্যা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইতালিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণার পরও সার্বিক পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে রেকর্ড সংখ্যক ১৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। অথচ তার আগের দিন মারা যায় ৯৭ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট ৮২৭ জনের মৃত্যু হলো। আর আক্রান্ত হয়েছে ১২,৪৬২ জন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দেশটির সরকার সব ধরনের বার, রেস্তোরাঁ, সেলুন, বিউটি পার্লার বন্ধ ঘোষণা করেছে। তবে সুপারমার্কেট, খাবার ও ওষুধের দোকান খোলা থাকবে। এর আগে জরুরি অবস্থা ঘোষণার সময়ই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সিনেমা হল, থিয়েটার স্টুডিও ও অন্যান্য সব ধরনের ইভেন্ট।

গত বছরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে ছড়ায় করোনাভাইরাস। এর পর তা বিশ্বের ১২১টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। আক্রান্ত ও মৃতের দিক থেকে চীনের পরই রয়েছে ইতালির নাম। এরপরই রয়েছে ইরান। দেশটিতে এ পর্যন্ত ৩৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ৯ হাজার মানুষ।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ভয়াবহ এই ভাইরাসে গোটা বিশ্বে ৪ হাজার ৬৩৩ জন মারা গেছে। আক্রান্ত হয়েছে এক লাখ ২৬ হাজার ২৫৮ জন। তবে আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৬৮ হাজার ২৬৬ জন। মৃত ও আক্রান্তদের অধিকাংশই চীনের বাসিন্দা।