advertisement
আপনি দেখছেন

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর আগামীকাল রোববার খুলছে মহানবী (সা.)-এর স্মৃতিবিজড়িত মদিনার মসজিদে নববি। এ ছাড়া মক্কা ব্যতীত সৌদি আরবের অন্যান্য এলাকার মসজিদগুলোও শর্তাসাপেক্ষে খুলে দেওয়া হবে এদিন। গতকাল শুক্রবার সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ এ ব্যাপারে অনুমোদন দিয়েছেন।

mosque e nabi madinaমদিনার মসজিদে নববি

যদিও আগেই জানা হয়েছিল যে, ৩১ মে থেকে মক্কা ছাড়া অন্যান্য মসজিদ খুলে দেওয়া হবে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো সৌদি আরবেও জারি রয়েছে কারফিউ। সেই কারফিউ কিছুটা শিথিলের অংশ হিসেবেই খুলে দেওয়া হচ্ছে মসজিদ।

সৌদি গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, তবে মসজিদে জামাতের ক্ষেত্রে মুসল্লির সংখ্যা ধারণক্ষমতার ৪০ শতাংশ পর্যন্ত সীমিত করা হয়েছে। পাশাপাশি কড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে মুসল্লিদের।

সৌদি আরবের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিন আব্দুল আজিজ আল-শেখ গতকাল শুক্রবার দেশের বিভিন্ন মসজিদ পরিদর্শন শেষে বলেছেন, পরিদর্শন করে দেখা গেছে, আমাদের মসজিদগুলোতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। মসজিদগুলোর অবস্থা বেশ ভালো।

এর আগেই সৌদি আরবের ধর্ম মন্ত্রণালয় জানায়, পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ও শুক্রবারের জুমার নামাজের জন্য মসজিদগুলো আগামী ৩১ মে থেকে ২০ জুন পর্যন্ত খুলে দেয়া হবে। সে সময় যেসব শর্তের কথা বলা হয় সেগুলো হলো-

# আজান দেয়ার ১৫ মিনিট আগে মসজিদ খুলে দেয়া যাবে। নামাজ শেষ হওয়ার ১০ মিনিট পর তা বন্ধ করে দিতে হবে। আজান দেওয়ার ১০ মিনিটের মধ্যেই নামাজ শুরু এবং ১০ মিনিটের মধ্যে মূল নামাজ (ফরজ) সীমাবদ্ধ রাখতে হবে।

# নামাজের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মসজিদের কোনো জানালা এবং দরজা বন্ধ রাখা যাবে না।

# পবিত্র কোরআন ও অন্যান্য সকল বই সাময়িক সময়ের জন্য সরিয়ে নিতে হবে।

#  এক মুসল্লি থেকে অন্য মুসল্লির মধ্যে অন্তত দুই মিটার দূরত্ব থাকবে। এক কাতার ফাঁকা রেখে পরবর্তী কাতারে দাড়াবেন নামাজিরা।

# মসজিদের সব ওয়াটার কুলার, রেফ্রিজারেটর বন্ধ থাকবে। সেখানে পানি ও খাদ্য সামগ্রী সরবরাহ করার সব কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। নামাজিদের মেসওয়াক ও সুগন্ধী ব্যবহারে বিরত থাকতে হবে। অযুখানা ও টয়লেট বন্ধ থাকবে।

# নামাজ ব্যতীত মসজিদে অন্যান্য ইসলামিক কার্যক্রম যেমন- কোরআন তেলাওয়াত, প্রগ্রাম ও লেকচার আগের মতোই বন্ধ থাকবে।

# মসজিদে নামাজ পড়তে আসা সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহারের বিষয়ে ইমামকে পরামর্শ দিতে হবে। সেইসঙ্গে নামাজিদের নিজস্ব জায়নামাজ আনতে হবে এবং নামাজ শেষে তা রেখে যাওয়া যাবে না। নিজের সঙ্গে ১৫ বছরের নিচে কোনো শিশু আনা যাবে না। সবাইকে বাসা থেকেই অযু করে আসতে হবে।

# জুমার দিন নামাজ শুরু করার ২০ মিনিট আগে আজান দিতে হবে।

# নামাজ শুরু হওয়ার ২০ মিনিট আগে মসজিদ খুলে দেয়া হবে এবং নামাজ শেষ হওয়ার ২০ মিনিট পরই মসজিদ বন্ধ করে দিতে হবে।

# ইমামদের জুমার বয়ান সংক্ষিপ্ত করে আনতে হবে। মূল নামাজ ১৫ মিনিটের বেশি হতে পারবে না।

sheikh mujib 2020