advertisement
আপনি দেখছেন

চীনের সঙ্গে উত্তেজনা ও সংঘাতের মধ্যেই এবার কাশ্মির সীমান্তে সেনা সমাবেশ করছে পাকিস্তান। তবে পাকিস্তান কোনো অভিযান চালালে উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। ভারতের ১৫ নম্বর কোরের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল পি রাজুর বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম।

pakistan border soldier deployedভারত সীমান্তে সেনা মোতায়েন করছে পাকিস্তান

লেফটেন্যান্ট জেনারেল রাজু বলছেন, লাদাখ সীমান্তে চীনের সঙ্গে চলমান পরিস্থিতির কোনো প্রভাব এখনও কাশ্মির পড়েনি। ১৪ নম্বর কোর সেখানকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে। অতিরিক্ত সেনা কাশ্মির হয়ে লাদাখ গেছে। কারণ ওই পথ দিয়েই লাদাখ যেতে হয়।

তিনি বলছেন, পাকিস্তানও সেনা সমাবেশ করছে। পাকিস্তান সম্প্রতি জানিয়েছিল, তারা ভারতের পক্ষ থেকে আক্রমণের শঙ্কা করছে। হয়তো সে ধরনের আশঙ্কা থেকেই নিজেদের প্রতিরক্ষার জন্যই সেনা সমাবেশ করেছে।

তবে আমরা সতর্ক আছি, বলছেন জেনারেল রাজু, পাক বাহিনী যুদ্ধবিরতি ভঙ্গ করলে উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে।

pak india border kashmirপাক-ভারত সীমান্ত

প্রসঙ্গত, গত ১৫ জুন লাদাখ সীমান্তে চীন ও ভারতের সংঘর্ষে অন্তত ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হয়। এ নিয়ে সীমান্তে উত্তেজনা অব্যাহত আছে। নেপাল ও ভুটানের সঙ্গেও সীমান্তে উত্তেজনা চলছে ভারতের। এর মধ্যেই সম্প্রতি দিল্লিস্থ পাক দূতাবাসের কর্মকর্তার সংখ্যা অর্ধেকে নামিয়ে আনার ঘোষণা দেয় ভারত। পাকিস্তানও পাল্টা ব্যবস্থা নেয়।

তারও আগে পাকিস্তানি দূতাবাসের দুই স্টাফকে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে গ্রেপ্তার করে ভারত। তার কয়েক দিন পর পাকিস্তান ইসলামাবাদে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসের দুই স্টাফকে গ্রেপ্তার করে। এ নিয়ে পাক-ভারত উত্তেজনার মধ্যেই সীমান্তে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করে ভারত।

পাক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ বলা হয়, চীনের সঙ্গে সংঘর্ষে সেনা নিহতের ঘটনায় জনগণের দৃষ্টি ফেরাতেই মোদি সরকার পাকিস্তান সীমান্তে সেনা মোতায়েন করছে। তবে কোনো ধরনের উস্কানিমূলক ঘটনা ঘটলে তার কড়া জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়। এর পরই ভারতীয় সেনা কর্মকর্তারা খবর দিলেন যে, সীমান্তে সেনা মোতায়েন করছে পাকিস্তান।

sheikh mujib 2020