advertisement
আপনি দেখছেন

চীনের পেকিং ইউনিয়ন মেডিকেল কলেজের গবেষকরা বানরের ওপর করোনাভাইরাসের প্রভাব নিয়ে গবেষণা করছেন। এতে তারা দেখতে পান, একবার ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হওয়ার ২৮ দিন পর্যন্ত বানরগুলোর দেহে দ্বিতীয়বার আক্রান্ত হয় না। এর কারণ প্রাণীগুলোর দেহে স্বল্প সময়ের মধ্যেই ইমিউনিটি বা রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরি হয়ে যায়।

rhesus macaques monkeys01রিসাস ম্যাকাকুইস প্রজাতির বানর

আল আরাবিয়া নিউজের বরাতে জানা যায়, গবেষকরা গবেষণার জন্য রিসাস ম্যাকাকুইস প্রজাতির বানরকে নির্বাচন করেছেন। এর কারণ এই প্রজাতির বানরের দৈহিক গড়নের সঙ্গে মানবদেহের বেশ সদৃশ রয়েছে।

গবেষকরা বলছেন, সংক্রমণের পরেই বানরগুলোর দেহে ইমিউনিটি তৈরি হয়। কিন্তু তা কতদিন স্থায়ী থাকে তা নিশ্চত বলা যাচ্ছে না। বিষয়টি জানা আমাদের জন্য খুব জরুরি। এর জন্য আমাদের কয়েক মাস কিংবা বছরখানেক অপেক্ষা করতে হতে পারে। কারণ মানবদেহে পর্যাপ্ত ও দীর্ঘমেয়াদী একটি ইমিউন সিস্টেম তৈরি করার লক্ষ্যেই আমাদের গবেষণা।

pandemic symbolic picture2করোনাভাইরাসের প্রতীকী ছবি

জানা যায়, গবেষণায় ৬টি রিসাস ম্যাকাকুইস বানরকে করোনাভাইরাসের ডোজ দেয়া হয়। এরপর প্রাণীগুলোর দেহে আক্রান্তের লক্ষণ দেখা দেয়। দুই সপ্তাহের মধ্যেই সবগুলো বানর সুস্থ হয়ে উঠে।

প্রথম সংক্রমণের ২৮ দিন পর গবেষকরা ৬টি বানরের মধ্যে ৩-৪টির দেহে পুনরায় করোনার ডোজ প্রদান করে। এরপর প্রাণীগুলোর দেহে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলেও করোনাভাইরাসে সংক্রান্ত হওয়ার অন্যান্য কোনো লক্ষণ দেখায়নি।

আল আরাবিয়া বলছে, বানরগুলো প্রথমবার সংক্রমিত হওয়ার পর পরই একটি শক্তিশালী ইমিউন তৈরি করেছে যাতে রয়েছে করোনারভাইরাসের বিরুদ্ধে কাজ করা শক্তিশালী এন্টিবডি। যা পরবর্তীতে প্রাণীগুলোকে দ্বিতীয়বার আক্রান্য হতে দেয়নি।

sheikh mujib 2020