advertisement
আপনি দেখছেন

সিরিয়ার সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘনকারী একটি প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে রাশিয়া ও চীন। গতকাল শুক্রবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে প্রস্তাবটি উত্থাপনের পর ভোটাভুটি হলে দেশ দুটির প্রতিনিধিরা এর বিপক্ষে ভোট দেন।

russia fadarationপ্রস্তাবে ভেটো দিচ্ছেন রাশিয়ার প্রতিনিধি

সিরিয়া বিষয়ক ওই প্রস্তাবের খসড়ায় বলা হয়, দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার অর্থাৎ প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের অনুমতি ছাড়াই অন্যদেশ থেকে সেখানে মানবিক ত্রাণ পাঠানো যাবে। দেশটির দুটি সীমান্ত দিয়ে ছয় মাসের জন্য এ মানবিক ত্রাণ পাঠানো হবে।

শুক্রবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে সিরিয়া বিষয়ক বিলটি অনুমোদনের জন্য উত্থাপিত হলে এ নিয়ে ভোটাভুটি হয়। এতে রাশিয়া ও চীনের প্রতিনিধিরা ভেটো দেন। এর আগেও দুইবার পরিষদে প্রস্তাবটি উত্থাপিত হলে দেশ দুটি ভেটো দিয়েছিলো।

un security council 3জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ- ফাইল ছবি

ইরানি গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, সিরিয়ার সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘনকারী প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য বেশ কিছুদিন ধরেই চেষ্টা করে আসছিলো পশ্চিমা দেশগুলো। কিন্তু প্রতিবারই রাশিয়া ও চীন এর তীব্র বিরোধিতা করেছে।

এ বিষয়ে বেইজিং ও মস্কোর বক্তব্য, সিরিয়ার বিষয়ে যেকোনো ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে দেশটির প্রেসিডেন্ট বাশার আসাদ বা তার সরকারের সঙ্গে কথা বলতে হবে। তাদের সঙ্গে সমন্বয় না করে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে না। এতে দেশটিতে চলমান সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধে কোনো ধরনের বিঘ্ন ঘটবে না।

২০১১ সাল থেকেই যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরবসহ তাদের আঞ্চলিক মিত্র দেশগুলো সিরিয়ার ওপর সহিংসতা চাপিয়ে দিয়ে আসছিলো। তবে গত দুই বছর ধরে সিরিয়ার সেনাবাহিনী বিদেশি মদদপুষ্ট সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে পরাজিত করে দেশটির বেশিরভাগ অংশ নিয়ন্ত্রণে নিতে সক্ষম হয়েছে।

sheikh mujib 2020