advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের সঙ্গে সীমান্ত বিরোধের মধ্যেই এবার রাম ও অযোধ্যাও তাদের বলে দাবি করলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা অলি। তিনি বলেছেন, সত্যিকারের অযোধ্যা নেপালে। আর হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম দেবতা রাম ভারতীয় নয়, নেপালি।

kp sharma oli nepalকে পি শর্মা অলি

বালুবাতারে নিজ বাসভবনে এক অনুষ্ঠানে কে পি শর্মা এমন দাবি করেন বলে সোমবার দেশটির গণমাধ্যমে বলা হয়েছে।

অলি বলেন, সাংস্কৃতিকভাবেও আমাদের শোষণ করা হয়েছে, বিকৃত করা হয়েছে তথ্য। এখনো আমদের বিশ্বাস যে, আমরা সীতাকে ভারতীয় রাজপুত্র রামের হাতে তুলে দিয়েছি। কিন্তু আমি বলব, কোনো ভারতীয় রাজপুত্রের হাতে নয়, বরং আমরা অযোধ্যার রাজপুত্রের হাতে সীতাকে তুলে দিয়েছি। আর বীরগঞ্জের কিছুটা পশ্চিমের একটা গ্রামে এই অযোধ্যা অবস্থিত। এখন যেটাকে অযোধ্যা বানানো হয়েছে, আসলে সেটা অযোধ্যা নয়।

প্রসঙ্গত, ভারত ও নেপালের মধ্যে যখন সীমান্ত নিয়ে তুমুল বিরোধ চলছে, তখন এসব মন্তব্য করলেন নেপালি প্রধানমন্ত্রী।

india nepalসম্প্রতি নেপাল-ভারত সীমান্তে উত্তেজনা

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং গত ৮ মে লিপুলেখ থেকে উত্তরখান্ডের ধারচুলাকে সংযুক্ত করে ৮০ কিলোমিটার রাস্তা উদ্বোধন করেন। এর পরই শুরু হয় মূলত উত্তেজনা। নেপাল এর প্রতিবাদ জানিয়ে দাবি করে, ভারত অবৈধভাবে সড়কটি তাদের ভূখন্ডে নির্মাণ করছে। এরপরই ওই এলাকাকে অন্তর্ভুক্ত করে নতুন মানচিত্র প্রকাশ করে অলি সরকার। নতুন সেই মানচিত্রের জন্য সংবিধান সংশোধনের প্রস্তাবও ইতোমধ্যে দেশটির পার্লামেন্টে পাস হয়েছে।

এ ছাড়া সম্প্রতি ভারত ও নেপাল সীমান্তে উত্তেজনার প্রেক্ষাপটে গুলি চালায় নেপাল পুলিশ। এতে এক ভারতীয় নাগরিক নিহত ও অন্তত তিন জন আহত হয়। যা সাম্প্রতিক ইতিহাসে প্রথম ঘটনা।

নয়াদিল্লির অভিযোগ, নেপালের ভারত বিরোধিতাকে উস্কে দিচ্ছে চীন। তাছাড়া অলি সরকারের এসব পদক্ষেপের সমালোচনাও করছেন দেশটির রাজনীতিবিদ। এর মধ্যে সাবেক প্রধানমন্ত্রী প্রচন্ডসহ দেশটির বহু বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ রয়েছেন।

তবে অলির দাবি, ভারতীয় স্বার্থ রক্ষা করতেই তার সরকারকে উৎখাতের চেষ্টা করছেন তারা।

sheikh mujib 2020