advertisement
আপনি দেখছেন

পৃথিবীতে এই মুহূর্তে সবচেয়ে এগিয়ে থাকা ভ্যাকসিনটি হল যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং দেশটির ওষুধ কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকা কর্তৃক তৈরিকৃত। তারপরেই পাল্লা দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের মর্ডানা কোম্পানির ভ্যাকসিনটি। সিএনএনের এক প্রতিবেদনে জানা যায়, দ্বিতীয় ধাপের ট্রায়ালে অংশগ্রহণকারী সবার শরীরে কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে মর্ডানার টিকা। ২৭ জুলাই শুরু হবে চূড়ান্ত ধাপের টেস্ট।

corona vaccine cannada

সিএনএনের প্রতিবেদনে আরো জানানো হয়, এটিই করোনাভাইরাস প্রতিরোধী একমাত্র টিকা যেটির ব্যাপারে পিয়ার-রিভিউড জার্নালে আর্টিকেল প্রকাশ হতে যাচ্ছে। এই জার্নালে আর্টিকেল প্রকাশ হলে সেটাকে ‘সর্বোচ্চ’ মানের বিবেচনা করা হয়। কারণ কয়েক ধাপে বিশেষজ্ঞরা তা যাচাই করে দেখেন।

মর্ডানা জানিয়েছে, ভ্যাকসিনের কাজ যে গতিতে এগুচ্ছে তাতে পরবর্তী বছরের শুরু থেকেই বাণিজ্যিকভাবে এটিকে বাজারে পাঠানো সম্ভব হবে। প্রতিবছর তাদের পক্ষে ৫০০ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন উৎপাদন করা সম্ভব। তবে আপাতত চূড়ান্ত ধাপের ট্রায়াল শেষ করে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিন হিসেবে অনুমোদন নেওয়াই মর্ডানার উদ্দেশ্য।

update 13april

কিছুদিন আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও মর্ডানার টিকার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। তারা বলেছেন- আশা করছি আমাদের হাতে কাছাকাছি সময়ে দুটো ভ্যাকসিন আসবে। একটি অক্সফোর্ড ও অন্যটি মর্ডানার টিকা। এ বছরের মধ্যেই টিকা দুটি বাজারে পাওয়া যাওয়ার জোর সম্ভাবনা রয়েছে।

sheikh mujib 2020