advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে এবার সীমিত আকারে পালন করা হয়েছে পবিত্র হজ। কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে হজের সব কার্যক্রম শেষ হলেও হাজিরা নিজেদের বাড়িতে ফিরতে পারছেন না। কারণ তাদের ১৪ দিনের বাধ্যমূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দিয়েছে সৌদি সরকার।

mecca 06সামাজিক দূরত্ব মেনে কাবা তাওয়াফ করছেন হাজিরা

আরব নিউজের বরাতে জানা যায়, হাজিদের হাতে ব্রেসলেট সদৃশ একটি ডিভাইস লাগানো হয়েছে। তাতাম্মাম নামে একটি অ্যাপের সঙ্গে সে ডিভাইসটি সরাসরি সংযুক্ত। যার কারণে হাজিদের সমস্ত গতিবিধি ও শারীরিক পরিস্থিতি ওই অ্যাপের মাধ্যমে জানা যাবে। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে এই ডিভাইসের মাধ্যমেই জানা যাবে কোনো হাজি করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছেন কি না।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে এবার সৌদি আরবসহ বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রের ১০ হাজার মুসল্লি হজে অংশ নিতে পেরেছেন। হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরুর আগে তাদের সবাইকে ৭ দিনের বাধ্যতামূলক আইসোলেশনে থাকতে হয়েছে।

social distancing in hajjসামাজিক দূরত্ব মেনেই সব কাজ করেছেন হাজিরা

সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সোমবার এক বিবৃতিতে জানায়, এখন পর্যন্ত কোনো হাজির মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কোনো লক্ষণ পাওয়া যায়নি। তারা এখন পর্যন্ত নিরাপদ এবং বেশ সুস্থ আছেন।

হাজিরা সুস্থ থাকলেও সুস্থ নেই সৌদি আরবের নাগরিকরা। দেশটিতে দৈনিক নতুন নতুন রোগীর সন্ধান মিলছে। বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। তবে জুন ও জুলাই মাসের তুলনায় কম রোগী শনাক্ত হচ্ছে।

সোমবার আগের ২৪ ঘণ্টা সময়ে ১ হাজার ২৫৮ জনের দেহে প্রাণঘাতী ভাইরাসটির অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। গত ১০ দিন দেশটিতে ২ হাজারের কম মানুষ শনাক্ত হয়েছে। বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছে সৌদি প্রশাসন।

সৌদি আরবে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৮১ হাজার ৪৫৬ জনের দেহে ভাইরাসটির সন্ধান পাওয়া গেছে। মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৯৮৪ জনের।

sheikh mujib 2020