advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের নতুন জাতীয় শিক্ষা নীতির তীব্র সমালোচনা করে নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন বলেছেন, প্রাচীন ভারত মানেই হিন্দুত্ব নয়। শনিবার সন্ধ্যায় এক ওয়েবিনারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

amartya sen newনোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন

নতুন শিক্ষা নীতিতে কেবল সনাতন হিন্দুত্বকেই প্রাধান্য দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে অমর্ত্য সেন বলেন, নতুন শিক্ষা নীতিতে হিন্দুত্বকে প্রাধান্য দেয়া হলেও উপেক্ষা করা হয়েছে লোকায়ত-চার্বাক কিংবা মুসলিম ধর্ম। সরকারের এটা মনে রাখা উচিত যে, প্রাচীন ভারত মানেই হিন্দুত্ব নয়।

প্রতীচী ট্রাস্টের উদ্যোগে আলোচনা চক্রে তিনি বলেন, প্রাচীন ভারতের আদর্শ বলতে শুধু সনাতন শিক্ষার কথা মনে রাখবো, আর ভারতের সামগ্রিক ইতিহাসের ধারা উপেক্ষা করবো, এটা ঠিক নয়। নতুন শিক্ষা নীতি পক্ষপাতমূলক।

ভারতের ভাবাদর্শের এই বহমানতায় সনাতন ধর্ম যেমন ছিল, তেমনই লোকায়ত বা চার্বাকের পরম্পরাও ছিল। যার মধ্যে ঈশ্বরহীনতা, ধর্মহীনতা, ধর্মবিরোধিতা ও সম্পূর্ণ যুক্তিনিষ্ঠ সবই আছে। ভারতের আদর্শের প্রতি একনিষ্ঠ হওয়া মানে নির্দিষ্ট একটি ধারার প্রতি অনুগত্য থাকা নয়, যোগ করেন নোবেলজয়ী এই অর্থনীতিবিদ।

amartya sen new1অমর্ত্য সেন

ভারতে মুসলিম প্রভাবও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, কারণ প্রাচীন হিন্দু ভারতেও গোটা দেশ বিশেষ করে বাংলা কিংবা আসাম এখনকার মতো ছিল না।

এর আগে ১৯৮৬ সালে গৃহীত শিক্ষা নীতির পরিবর্তে নতুন শিক্ষা নীতি গ্রহণ করতে চলতি বছরের ২৯ জুলাই ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা একটি খসড়া চূড়ান্ত করেছে। এ কাজে জড়িত ছিল বিজেপির ভাবাদর্শিক সহযোগী কট্টর হিন্দুত্ববাদী সংগঠন আরএসএস। খসড়ায় হিন্দু ধর্মের পাশাপাশি সনাতন সংস্কৃত ভাষাকেও উৎসাহিত করার কথা বলা হয়েছে।

sheikh mujib 2020