advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের বিষয়ে চীনের বিরুদ্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিযোগ নতুন নয়। ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই চীনের বিরুদ্ধে তোপ দাগছেন তিনি। তারই ধারাবাহিকতায় ফের বললেন, চীনের কারণেই করোনাভাইরাস বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে এবং এর জন্য দেশটিকে চড়া মূল্য দিতে হবে।

trump returned white houseহাসপাতাল থেকে হোয়াইট হাউসে ফিরছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

শুরু থেকে কোভিড-১৯ নিয়ে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করা ট্রাম্প সম্প্রতি নিজেও সংক্রমিত হয়েছেন। তবে বর্তমানে তিনি সুস্থ হয়েছেন বলে তার চিকিৎকরা দাবি করেছেন। কোভিড-১৯ আক্রান্ত হওয়ার পরই সম্প্রতি টুইটারে পোস্ট করা এক ভিডিওতে ট্রাম্প চীনকে ওই হুঁশিয়ারি দেন বলে খবর দিয়েছে এনডিটিভি।

ভিডিওর বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, চীন থেকে কোভিড-১৯ গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। আর তা থেকে মানুষকে রক্ষায় হিমশিম খাচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। এ জন্য চীনকে বিশ্বের কাছে উচ্চ মূল্য দিতে হবে।

wuhan institute of virology in chinaঅভিযোগ করা হয় চীনের উহানের এই ল্যাব থেকেই ছড়ায় করোনা

প্রসঙ্গত, গত ২ অক্টোবর করোনায় আক্রান্ত হয়ে ম্যারিল্যান্ডের সামরিক হাসপাতালে ভর্তি হন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর তিন দিনের মাথায় শরীরে করোনার জীবাণু নিয়েই হাসপাতাল ছেড়ে হোয়াইট হাউসে চলে আসেন তিনি।

হাসপাতাল থেকে ফেরার পর ট্রাম্প এক ভিডিওতে বলেন, করোনা একটি ইন্টারেস্টিং বিষয়, ভয় পাওয়ার কিছু নেই। অনেক কিছু শিখেছি, সময় হলে আপনাদের সেগুলো বলব।

এদিকে, ট্রাম্প গতকাল শনিবার বলেন, দ্রুত ভ্যাকসিন চলে আসছে। প্রস্তুত আছে অন্যান্য ওষুধও। সুতরাং করোনা আমাদের ওপর খুব বেশি প্রভাব বিস্তার করতে পারবে না।

ডোনাল্ড ট্রাম্প এসব কথা যখন বলছেন, তখন বিশ্বে ভাইরাসটিতে সংক্রমণ ও মৃত্যু উভয় দিক থেকেই শীর্ষে রয়েছে তার দেশ। এখন পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৯ লাখ ৪৫ হাজার ৫০৫ জন। মারা গেছে ২ লাখ ১৯ হাজার ২৮২ জন। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৫০ লাখ ৮৯ হাজার ৮৪২ জন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ চীনের উহান থেকে কোভিড-১৯ ছড়ায় বলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ অন্যান্য মাধ্যমগুলো দাবি করে। তখন থেকেই ট্রাম্পের অভিযোগ, উহানের ল্যাব থেকে ছড়িয়েছে ভাইরাসটি এবং চীন ইচ্ছা করেই সেটা বিশ্বে ছড়িয়ে দিয়েছে। যদিও চীন বরাবর এসব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।