advertisement
আপনি দেখছেন

আর মাত্র কয়েকদিন পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তার আগেই ডেমোক্র্যাটিক (জো বাইডেন-কমলা হ্যারিস) ভোটারদের হুমকি দিয়ে মেইল পাঠানোর অভিযোগ উঠেছে ইরানের বিরুদ্ধে। এমন চাঞ্চল্যকর তথ্যই জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই।

trump biden 1রিপাবলিকান মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী জো বাইডেন (ডানে)

সংস্থাটির কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বিবিসির খবরে বলা হয়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মাত্র ১৩ দিন আগে গোয়েন্দা সংস্থার কাছ থেকে এমন ঘোষণা এসেছে। তারা আরো জানিয়েছে, রাশিয়ার কাছেও নাকি যুক্তরাষ্ট্রের ভোটারদের তথ্য আছে।

এফবিআই পরিচালক জন র‍্যাটক্লিফ জানান, অস্থিরতা উসকে দেয়ার উদ্দেশ্যে মেইলগুলো কট্টর ডানপন্থি ট্রাম্প সমর্থক একটি গ্রুপের কাছ থেকে পাঠানো হয়েছে। 'প্রাউড বয়েজ' নাম ব্যবহার করে ইরান এসব স্পুফ ইমেইল পাঠিয়েছে।

iran russia flagরাশিয়া ও ইরানের জাতীয় পতাকা

ভোটারদের ভয় দেখাতে, বিশৃঙ্খলা উসকে দিতে এবং প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সুনাম ক্ষুণ্ন করতে এগুলো পাঠানো হয়েছে দাবি করে তিনি আরো জানান, ইরানের পাশাপাশি রাশিয়ার কাছেও কিছু ভোটারের তথ্য আছে। অবশ্য মস্কোর পক্ষ থেকে একই ধরনের কর্মকাণ্ড এখন পর্যন্ত দেখা যায়নি।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে বলা হয়, আগে থেকেই যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষের এমন শঙ্কা ছিল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে বিদেশি বিভিন্ন সংস্থা ভোট গ্রহণে হস্তক্ষেপ ও নির্বাচনকে ঘিরে ভুয়া তথ্য ছড়াতে পারে বলে সতর্কও করেছিল।

সম্প্রতি পাঠানো সন্দেহজনক মেইলগুলো একাধিক রাজ্যের ডেমোক্র্যাট ভোটারদের কাছে পাঠিয়ে বলা হয়েছে, 'তারা যেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ভোট দেন। যদি ভোট না দেয়, তাহলে পরবর্তীতে তাকে খুঁজে বের করা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়। রিপাবলিকানদের সমর্থন করলেই বুঝতে পারবো যে, আপনি আমাদের বার্তা পেয়েছেন।'

sheikh mujib 2020