advertisement
আপনি দেখছেন

আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের চূড়ান্ত বিতর্কটি প্রতিদ্বন্দ্বী দুই প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেনের শালীন আচরণে বেশ উপভোগ্য হয়েছে। স্থানীয় সময় গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৯০ মিনিটের এ বিতর্কে বিশৃঙ্খলা এড়াতে মাইক্রোফোন ২ মিনিট করে বন্ধ রাখা হয়। এ কারণে ডেমোক্রাট ও রিপাবলিকান দলের দুই নেতার এ বাকযুদ্ধ প্রাণবন্ত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

trump biden debate 3ট্রাম্প ও বাইডেনের ৩য় বিতর্কের দৃশ্য

বিতর্ক বিষয়ক নিরপেক্ষ কমিশন আয়োজিত শেষ ধাপের এ বিতর্কে ১৫ মিনিট করে বিভক্ত ছয় ভাগে ৬টি বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। একেকজন প্রার্থীর জন্য বরাদ্দকৃত প্রতি ১৫ মিনিটের প্রথম দুই মিনিট বন্ধ (মিউট) রাখা হয় অন্য প্রার্থীর মাইক্রোফোন।

বিশৃঙ্খলা এড়াতে প্রতীকী সিদ্ধান্ত নেয়ার পর বিতর্ক কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়, উভয় প্রার্থী উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেয়ার সময় তারা পরস্পরের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করবেন বলে আশা করি। ওই সিদ্ধান্তের কারণেই এবার তাদের সে আশা শেষ পর্যন্ত পূরণ হয়েছে বলে মনে করছেন মার্কিনিরা।

কেননা, গত সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেনের প্রথম বিতর্কে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা দেখা দিয়েছিল। প্রতিদ্বন্দ্বী দুই প্রার্থীর পাল্টা-পাল্টি আক্রমণের সময় ট্রাম্প হইচই করায় এমন তিক্ত ঘটনা ঘটেছিল। কিন্তু টেনেসি অঙ্গরাজ্যের ন্যাশভিলে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মঞ্চের তৃতীয় এ বিতর্কে দুই প্রার্থীই অত্যন্ত ভদ্রোচিত আচরণ করেন এবং একে অপরের বিরুদ্ধে তীক্ষ্ণভাবে যুক্তিতর্ক উত্থাপন করেন।

trump biden debate 1ট্রাম্প ও বাইডেনের ১ম বিতর্কের দৃশ্য

ভয়েস অব আমেরিকা বলছে, এবারের অনুষ্ঠানে দুই প্রার্থীর শালীন আচরণের পাশাপাশি বিতর্কের উপস্থাপিকা ক্রিস্টেন ওয়েলকারও বিশেষ আকর্ষণে পরিণত হন। নিপুণভাবে বিতর্কটি পরিচালনা করেন এনবিসি নিউজের এই নারী সঞ্চালক।

সমালোচকদের ভাষ্য, তৃতীয় এই বিতর্ক দারুণ হয়েছে। ব্যক্তি আক্রমণ ছিল না বললেই চলে। পুরো সময়জুড়ে ছিলো ‘কেউ কারে নাহি ছাড়ে সমানে সমান’ অবস্থা। নির্বাচনের আগে ভোটাররা এমন একটা জমজমাট বিতর্কের অপেক্ষাই করছিলেন। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ট্রাম্পকে নাস্তানাবুদ করার চেষ্টা করেছেন জো বাইডেন। তাতে ট্রাম্প অবশ্য তার আগের অবস্থা থেকে সরে যাননি।

এর আগে ট্রাম্প সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিন দিন হাসপাতালে কাটিয়ে হোয়াইট হাইসে ফেরেন। এ কারণে দ্বিতীয় বিতর্কটি গত সপ্তাহে ভার্চুয়ালি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল আয়োজকরা। কিন্তু ট্রাম্প তা প্রত্যাখ্যান করায় শেষ পর্যন্ত বিতর্ক অনুষ্ঠান বাতিল হয়ে যায়।

sheikh mujib 2020