advertisement
আপনি দেখছেন

দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘নিভার’। এটি ধীরে ধীরে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হচ্ছে। আগামীকাল বুধবার বিকেলে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়ে ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের পুদুচেরি উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে বলে জানিয়েছে ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তর।

niver situation 2ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’- প্রতীকী ছবি

আবহাওয়া অধিদপ্তরের বরাত দিয়ে মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) দেশটির বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানায়, ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’ ধীরে ধীরে আরো ঘণীভূত হচ্ছে এবং উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে। বর্তমানে চেন্নাই থেকে ৪৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে এবং পুদুচেরি থেকে ৪১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থান করছে। এটি আগামীকাল বুধবার বিকেল নাগাদ তামিলনাড়ু রাজ্যের মামাল্লাপুরম এবং কারাইকলের মাঝামাঝি পুদুচেরি উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে।

দেশটির আবহাওয়া অফিস জানায়, ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’ ঘণ্টায় ১১০-১২০ কিলোমিটার গতিতে উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে। এ সময় গোটা রাজ্যে ভারী বৃষ্টিপাত হতে হতে পারে। পাশাপাশি প্রবল ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

niver situationঘূর্ণিঝড় ‘নিভারে’র বর্তমান অবস্থান

এদিকে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় আগামী তিন দিনের জন্য পুদুচেরিতে ১৪৪ ধারা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন। আগামীকাল বুধবার তামিলনাড়ুতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

চেন্নাইয়ের আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি রাজ্যজুড়ে ব্যাপক তাণ্ডব চালাতে পারে। এর সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়তে পারে চেন্নাই, কাড্ডালোর, পুদুচেরি ও ভিলুপুরমে। ঘূর্ণিঝড়ের আগে বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে নেওয়া ও ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী পর্যায়ে উদ্ধারকাজ চালানোর জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবেলা বাহিনীর (এনডিআরএফ) ৩০টি দল।

অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে তামিলনাড়ুতে ইতোমধ্যে বেশ কিছু ট্রেন ও আন্তঃজেলা বাস সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। জরুরি প্রয়োজন ব্যতীত বাসিন্দাদের ঘরের বাইরে বের না হওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

প্রতিবেশি দেশ ভারতে আঘাত হানলেও ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাব বাংলাদেশে পড়বে না বলে জানিয়েছেন দেশের আবহাওয়াবিদরা।

sheikh mujib 2020