advertisement
আপনি দেখছেন

চীনের উহানে প্রথমবারের মতো করোনা রোগী শনাক্ত হয় ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে। পরবর্তীতে নতুন এ ভাইরাসে ব্যাপক প্রাণহানি ঘটে দেশটিতে, ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্বে। গত বছরের মেতে উহানে সংক্রমণ বন্ধ হলেও বিশ্বব্যাপী এখনো থামেনি মৃত্যুর মিছিল।

who in chinaউহানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধিরা

আল জাজিরা জানায়, করোনার উৎসের সন্ধানে আজ বৃহস্পতিবার উহানে পৌঁছেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) একটি বিশেষজ্ঞ দল। সেখানে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থেকে অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরু করবে দলটি।

দেশটিতে নতুন করে করোনার সংক্রমণ ব্যাপভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। ৮ মাস পর রাজধানী বেইজিংয়ের পার্শ্ববর্তী হেবেই প্রদেশে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। কোভিড আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরো ১৩৮ জন।

চীনের উত্তরাঞ্চলে করোনার সংক্রমণ বাড়ায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এ ছাড়া জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে অন্য একটি প্রদেশে।

wuhan china mapচীনের উহানের মানচিত্র

এমন সয়ম বিভিন্ন দেশের শক্তিশালী ১০ জন বিশেষজ্ঞের সমন্বয়ে গঠিত ডব্লিউএইচও’র একটি দল উহানে পৌঁছানোর খবর এলো। এএফপি জানায়, সংস্থাটির এই অনুসন্ধানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন পিটার বেন এমবারেক।

সশরীরে চীনা কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করা ছাড়াও সম্ভাব্য সব জায়গায় যেতে পারবে বলে জানান পিটার বেন। তবে এ বিষয়ে পূর্ণ ধারণা পেতে দীর্ঘ সময় লেগে যেতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

corona in china 2চীনে নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে

নতুন এ ভাইরাস শনাক্তের এক বছরের বেশি সময় পার হলেও উৎস নিয়ে ধোঁয়াশা এখনো কাটেনি। এরই মধ্যে সারা বিশ্বে ৯ কোটি ২৭ লাখের বেশি মানুষের শরীরে প্রাণঘাতী করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছে প্রায় ১৯ লাখ ৮৬ হাজার।

কয়েক মাস ধরে ভাইরাসটির উৎস খুঁজতে আন্তর্জাতিক একটি বিশেষজ্ঞ দলকে উহানে পাঠানোর চেষ্টা করে আসছিল ডব্লিউএইচও। কিন্তু চীনা কর্তৃপক্ষ এতে সায় না দেয়ায় তা বেশ বিলম্বিত হলো।

sheikh mujib 2020