advertisement
আপনি দেখছেন

করোনার টিকা বিদেশে রপ্তানি অব্যাহত রাখতে উৎপাদন বাড়াতে ৩ হাজার কোটি রুপি চেয়েছে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট। গতকাল মঙ্গলবার এ কথা জানান প্রতিষ্ঠানটির প্রধান আদর পুনাওয়ালা।

serum institute of india officeসেরাম ইনস্টিটিউট, ফাইল ছবি

ভারতীয় গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ভাইরাসটির দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে জুন-জুলাইয়ের মধ্যে অধিক সংখ্যক মানুষকে টিকার আওতায় আনতে হবে। এ জন্য টিকাদান কর্মসূচি আরো জোরদার করা জরুরি।

টিকাদান বাড়াতে হলে উৎপাদনও বাড়াতে হবে উল্লেখ করে সেরাম প্রধান বলেন, ভারতের জন্য ও বিদেশে রপ্তানির জন্য টিকার উৎপাদন বাড়াতে হবে। ক্ষমতা না বাড়ালে সেটি সম্ভব হবে না, যা নিয়ে বেশ চাপের মুখে রয়েছেন তারা।

দুদিন আগে বিষয়টি দেশটির প্রধানমন্ত্রীকে জানানোর কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, সেরামে বর্তমানে মাসে ৬ কোটি ডোজ টিকা উৎপাদন করা হচ্ছে, যা দ্রুতই দ্বিগুণ করার চেষ্টা চলছে।

serum institute adar poonawalaআদর পুনাওয়ালা, ফাইল ছবি

এ ছাড়া হায়দরাবাদের ভারত বায়োটেক প্রতিমাসে ৪ কোটি ডোজ উৎপাদন করছে জানিয়ে আদর পুনাওয়ালা বলেন, জুন-জুলাই নাগাদ সব মিলিয়ে টিকার উৎপাদন ১৪ কোটি ডোজে নিয়ে যেতে হবে। এটি সম্ভব না হলে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে করা চুক্তি অনুযায়ী টিকা রপ্তানি করা কঠিন হয়ে পড়বে।

এনডিটিভি জানায়, ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ লাখ ১৬ হাজার জন নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যুহারও ক্রমাগতভাবে বাড়ছে। ভাইরাসটির সংক্রমণ দিনকে দিন মারাত্মক হওয়ায় টিকাদান কেন্দ্রগুলোতে ভিড় বেড়েই চলেছে।

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকা চুক্তিভিত্তিক উৎপাদন করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। তাদের টিকা পেতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ চুক্তি করেছে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে।